ঢাকারবিবার , ২১ আগস্ট ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার
৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজট

মাধবপুরে চা শ্রমিকদের ৪ ঘন্টা পর অবরোধ প্রত্যাহার

dWPKOARWAa
আগস্ট ২১, ২০২২ ৬:৩৪ অপরাহ্ণ

হবিগঞ্জের মাধবপুরে চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ৩০০ টাকা বৃদ্ধির দাবিতে ঢাকা সিলেট মহাসড়কে জগদীশপুর মুক্তিযোদ্ধা চত্ত্বরে ৪ ঘন্টা পর মহাসড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছেন চা শ্রমিকরা। প্লেকার্ড ফেষ্টুন নিয়ে মহাসড়কে অবস্থান অবরোধ চলাকালে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ৪-৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে শত শত যাত্রী বাস সহ যানবাহন আটকা পড়ে।
গরমের মধ্যে আটকা পড়া যাত্রীরা এ সময় চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকজন মহাসড়ক থেকে সরে যাবার বার বার অনুরোধ করলে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকরা না মেনে মহাসড়কের ওপর তাদের দাবি পুরণের দাবিতে চা শ্রমিক নেতারা বক্তব্য প্রদান করেন।
গতকাল শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদপ্তরের কার্যালয়ে চা শ্রমিকের মজুরি ১২০টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৪৫টাকা বৃদ্ধি করার সংবাদ বিভিন্ন বাগানে ছড়িয়ে পড়লে শ্রমিকরা আরো বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়ে। মহাসড়কে সমাবেশে শ্রমিক নেতারা বলেন, গত ১৩ আগস্ট থেকে বাংলাদেশের ১৬৮টি চা বাগানে শ্রমিকরা তাদের দৈনিক মজুরি ৩০০টাকা করার দাবিতে লাগাতার কর্মবিরতি করে আসছেন। এর মধ্যে শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের উদ্যোগে শ্রীমঙ্গল শ্রম দপ্তর কার্যালয়ে শ্রমিক নেতাদের নিয়ে সরকার পক্ষের বৈঠক হয়। কিন্তু এ বৈঠকে চা বাগান মালিক পক্ষের কোন প্রতিনিধি উপস্থিত হননি। এর পর ঢাকায় শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কার্যালয়ে শ্রমিক প্রধিনিধি ও বাংলাদেশ চা সংসদের প্রতিনিধিদের নিয়ে দ্বিতীয় বৈঠকেও কোন সুরাহা হয়নি।
২৩ আগস্ট ঢাকায় শ্রমমন্ত্রী মুন্নি জান সুফিয়ানের উপস্থিতে সব পক্ষকে নিয়ে ঢাকায় বৈঠক হওয়ার কথা। কিন্তু এর আগে গতকাল শনিবার বিকেলে শ্রীমঙ্গলে শ্রম অধিদপ্তরের কার্যালয়ে একটি বৈঠক হয়। বৈঠকে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক নৃপেন পান বলেন, শ্রীমঙ্গলের বৈঠকে শ্রমিকদের মজুরি ১২০টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৪৫টাকা ঘোষনা এটি একটি প্রহসন। আমাদের জিম্মি করে জোর জবরদস্তি চালিয়ে এ ঘোষনা করা হয়েছিল। এর প্রতিবাদে লাগাতার কর্মবিরতির ৮ম দিনে হবিগঞ্জের ২৩টি চা বাগানের কয়েক হাজার শ্রমিক মহাসড়কে অবস্থান নেয়।
নৃপেন পান বলেন, ২৩ আগস্টের মধ্যে তাদের ৩০০টাকা মজুরি মেনে না নিলে ২৪আগস্ট থেকে আবার মহাসড়ক অবরোধ সহ কঠিন কর্মসূচী দেওয়া হবে। অবরোধ চলাকালে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লস্কর ভ্যালী সভাপতি রবীন্দ্র গৌড়, লালন পাহান, খোকন পানতাঁতী, প্রদীপ কৈরি, মোহন রবিদাস, ধনা বাউড়ি, খায়রুন নাহার, লক্ষীচরন প্রমুখ।
অবরোধ চলাকালে মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন, সহকারী পুলিশ সুপার মহসিন আল মুরাদ, অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান, বেনু মাধব রায়, পংকজ কুমার সাহা, শ্রীধাম দাশগুপ্ত, আইয়ূব খান শ্রমিক নেতাদের অনুরোধ করলে জনভোগান্তি এড়াতে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকরা বেলা ৩ টার দিকে অবরোধ তুলে নেয়।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত