ঢাকাসোমবার , ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

চাঁদা না পেয়ে সড়কের কার্পেটিং তুলে ফেলার অভিযোগ

online editor
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২২ ৪:০২ অপরাহ্ণ

দুই লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে সড়ক নির্মাণকাজের কার্পেটিং তুলে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা, এমন অভিযোগে থানায় জেনারেল ডায়েরি (জিডি) করেছেন ঠিকাদার ওসম হোসাইন ভুলু। সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রায়পুর থানায় এ জিডি করেন তিনি।

জিডিতে ওসম হোসাইন ভুলু উল্লেখ করেন, সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরুর পরপরই তাওয়া পট্টি এলাকার কিছু যুবক চাঁদা দাবি করে আসছে। তাওয়া পট্টির সামনের সড়কে কাজ করতে গেলে কয়েকজন দুর্বৃত্ত কাজে বাধা দেয়। তাদের বাধা উপেক্ষা করে নির্মাণ কাজ শুরু করে শ্রমিকরা। এরপর থেকে বিভিন্ন নম্বর থেকে টাকা দেওয়ার জন্য হুমকি দেওয়া হতো। সড়কটিতে ভালোভাবে নতুন কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ করার পরপরই যানবাহন চলাচল শুরু করে। কিন্তু গত রবিবার রাতে দুর্বৃত্তরা চাঁদা না পেয়ে সড়ক একটি অংশের কার্পেটিং তুলে ফেলে। মাত্র ক’দিন আগেই রায়পুর উপজেলার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রায়পুর-পানপাড়া সড়কে পিচঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়।

উপজেলা প্রকৌশল অফিস (এলজিইডি) সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে সড়কটির ৬ কিলোমিটারের সংস্কারকাজ চলছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৯ কোটি ১৭ লাখ টাকা। টেন্ডার পেয়ে গত বছর মে মাসে কাজ শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স তমা কন্সষ্ট্রাকশন ও এমএ ইঞ্জিনিয়ারিং। এরমধ্যে রাস্তাটির প্রায় ৬ কিলোমিটার কার্পেটিং শেষ হয়েছে। কিন্তু পুরো কাজ শেষ হতে না-হতেই শনিবার রাতে সড়কের একটি অংশের কার্পেটিং খুন্তি দিয়ে কুপিয়ে উঠিয়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।

সড়কটি কার্পেটিং কাজে তদারকির দায়িত্বে থাকা উপজেলা প্রকৌশলী মোস্তফা মিনহাজ বলেন, ‘শিডিউল অনুসরণ করেই সড়কটি পাকাকরণের কাজ শেষ হয়েছে। কোনরকম অনিয়ম হয়নি। নতুন ঢালাইয়ের পর কে বা করা রাতের অন্ধকারে কার্পেটিং তুলে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। আমরা বিষয়টি তদারকি করে দেখছি।’

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া বলেন, ‘উন্নয়নমূলক কাজে এমন ঘটনা ঘটলে তা সত্যি দুঃখজনক। আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। এ ঘটনায় ঠিকাদার থানায় একটি জিডি করেছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত