ঢাকারবিবার , ২৩ জানুয়ারি ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ জুড়ে
  14. দেশ পরিবার
  15. দেশ ভাবনা

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে শাবির আন্দোলনকারীদের বৈঠক আজ

সহকারী ব্যুরো (সিলেট)
জানুয়ারি ২৩, ২০২২ ১১:২৭ পূর্বাহ্ণ

উপাচার্য ইস্যুতে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে দ্বিতীয় দফার বৈঠক করবেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি। আজ রবিবার দুপরে ভার্চুয়াল এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
এর আগে গতকাল শনিবার রাত ১টা থেকে সোয়া একঘন্টা শাবিপ্রবির আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রথম দফা ভার্চুয়াল বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি। এসময় আন্দোলনরতরা উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবি জানালেও এনিয়ে কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। মন্ত্রী তাদেরকে দাবির কথা লিখিতভাবে জমা দেওয়ার পরামর্শ দেন, একই সঙ্গে তিনি অনশনরতদের অনশন ভঙ্গের অনুরোধ জানান।
শনিবার রাত ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া আইআইসিটি ভবনের ১২৯ নম্বর কক্ষে বৈঠক শুরু হয়। রাত সোয়া দুইটার দিকে এ বৈঠক শেষ হয়।
বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রীর প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেওয়া আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষামন্ত্রী আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের কথা শুনেছেন, এবং তাদেরকে অনশন ভঙ্গ করার অনুরোধ জানিয়েছেন। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সবার সঙ্গে কথা বলে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানাবে। তিনি জানান, শিক্ষামন্ত্রী আন্দোলনরতদের তাদের দাবিগুলো লিখিতভাবে জমা দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন। আশ্বস্ত করেছেন, লিখিত দাবি পেলে সেগুলো সমাধানে উদ্যোগ নেবে সরকার।
নাদেল বলেন, শিক্ষামন্ত্রী উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি সম্পর্কে কোন মন্তব্য করেননি। তিনি শিক্ষার্থীদের লেখাপড়াসহ আইনি কোন ঝামেলা যাতে না হয় সে দিকটি দেখবেন বলে জানিয়েছেন।
বৈঠকে উপস্থিত আন্দোলনকারীরা আজ রবিবার সকালে সবার সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন নাদেল।
এসময় তার সঙ্গে ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক বিধান কুমার সাহা, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী প্রমুখ।
এরআগে শনিবার রাতেই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আলোচনায় বসার অনুরোধ জানান শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাই তারা (শিক্ষার্থীরা) অনশন প্রত্যাহার করুক, তারা আমাদের সঙ্গে আলোচনায় বসুক। এখন যদি অনশনরত অবস্থাতেও বসতে চায় তাও করতে পারে। যেকোনো সমস্যার একমাত্র সমাধান আলোচনা। কাজেই আমরা আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার সমাধান করতে চাই। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনার জন্য দ্বার সব সময়ই উন্মুক্ত।
শনিবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নিজ বাসভবনে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন শিক্ষামন্ত্রী।
তিনি জানান, প্রয়োজনে তার প্রতিনিধিদল শাবিতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করতে প্রস্তুত। শিক্ষার্থীরা যখন কথা বলতে রাজি হবে তখনই প্রতিনিধি যেতে পারবে। পারিবারিক কারণে এখন তিনি নিজে সিলেটে যেতে পারছেন না বলে জানান মন্ত্রী।
উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে গত বুধবার দুপুর আড়াইটা থেকে আমরণ অনশনে বসেন শাবির ২৪ শিক্ষার্থী। এরমধ্যে একজনের বাবা হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ায় তিনি অনশন শুরুর পরের দিনই বাড়ি চলে যান। বাকি ২৩ অনশনকারীর মধ্যে এখন ১৬ জন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।
প্রসঙ্গত, গত ১৩ জানুয়ারি রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রাধ্যক্ষ জাফরিন আহমেদের বিরুদ্ধে অসদাচরণের। অভিযোগ তুলে তাঁর পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন হলের কয়েক শ ছাত্রী। শনিবার সন্ধ্যার দিকে হলের ছাত্রীদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। রোববার দাবি আদায়ে ছাত্রীরা উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখলে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশি সংঘর্ষ হয়। এতে অর্ধশত শিক্ষার্থীসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে সোমবার দুপুর ১২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগেরও নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে এ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া