ঢাকাশনিবার , ২২ জানুয়ারি ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ জুড়ে
  14. দেশ পরিবার
  15. দেশ ভাবনা
শিক্ষামন্ত্রীর সাথে বৈঠক আজ

হাসপাতালে শাবির ১৬ অনশনকারী

সহকারী ব্যুরো (সিলেট)
জানুয়ারি ২২, ২০২২ ২:০৪ অপরাহ্ণ

উপাচার্য ইস্যুতে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনশনকারীদের মধ্যে অসুস্থের সংখ্যা বাড়ছে। সবশেষ শনিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুর ১টা পর্যন্ত ১৬ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকলেও তাঁরা অনশন ভাঙেননি বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।
ভিসির বাস ভবনের সামনে অনশনে থাকা বাকী সবার হাতেও স্যালাইন চলছে। তাদের  মধ্যে একজনের অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানা গেছে। উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন টানা দশম দিনের মতো শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে।
শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার দ্বায়িত্বে থাকা সিলেট ওসমানী মেডিকেল টিমের সদস্য মো.নাজমুল হাসান দেশকে বলেন, অনশনরত শিক্ষার্থীদের অবস্থা ক্রমেই খারাপের দিকে যাচ্ছে। হাসপাতালে থাকা ১৬ জনের মধ্যে একজন শিক্ষার্থীর অবস্থা গুরুতর। তাকে দ্রুত সময়ের মধ্যে মুখ দিয়ে খাবার না খাওয়ালে অবস্থার আরও অবনতি হবে। এ সংখ্যাটা আরও বৃদ্ধি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।
এর আগে গত বুধবার বিকাল থেকে ২৪ জন শিক্ষার্থী আমরণ অনশনে বসেন। উপাচার্য পদত্যাগ না করা পর্যন্ত তারা অনশন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন।
এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা গণমাধ্যমকে জানান, ২৪ জন অনশনে বসলেও বাবার অসুস্থতাজনিত কারণে একজন বাসায় চলে গেছেন। ১৬ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জালালাবাদ রাগিব রাবেয়া হাসপাতাল ও মাউন্ড এডোরা হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে।
শিক্ষামন্ত্রী বৈঠক করতে ঢাকায় ৫ শিক্ষক এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুর মনির সঙ্গে বৈঠকের জন্য ঢাকায় অবস্থান করছেন পাঁচজন শিক্ষক। গতকাল শুক্রবার রাতে তাঁরা সিলেট থেকে ঢাকায় যান। এই প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আজ শনিবার ‘বিকালে বা সন্ধ্যায়’ শিক্ষামন্ত্রীর বৈঠক হতে পারে বলে জানা গেছে।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের সংবাদমাধ্যমকে বলছিলেন, শাবিপ্রবির কয়েকজন শিক্ষক শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে ঢাকায় এসেছেন। তারা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে সময় চেয়েছেন। শিক্ষামন্ত্রী একটি অনুষ্ঠানে থাকায় আজ ​বিকেলে বা সন্ধ্যায় এ বৈঠক হতে পারে।
পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দলে রয়েছেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক তুলসি কুমার দাশ, সাধারণ সম্পাদক মহিবুল আলম, ফিজিক্যাল সায়েন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার, অ্যাপ্লাইড সায়েন্স অনুষদের ডিন ডিন অধ্যাপক ড. আরিফুল ইসলাম ও বাণিজ্য অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. খায়েরুল ইসলাম রুবেল।
আন্দোলনের সূত্রপাত ১৩ জানুয়ারি। ওই দিন রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রাধ্যক্ষ জাফরিন আহমেদের বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ তুলে তাঁর পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন হলের কয়েক শ ছাত্রী। গত শনিবার সন্ধ্যার দিকে হলের ছাত্রীদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। রোববার দাবি আদায়ে ছাত্রীরা উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখলে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশি সংঘর্ষ হয়। এতে অর্ধশত শিক্ষার্থীসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে সোমবার দুপুর ১২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগেরও নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে এ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া

আপনার জন্য নির্বাচিত