ঢাকাবুধবার , ১৯ জানুয়ারি ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ জুড়ে
  14. দেশ পরিবার
  15. দেশ ভাবনা

আমরণ অনশনে শাবি শিক্ষার্থীরা

সহকারী ব্যুরো (সিলেট)
জানুয়ারি ১৯, ২০২২ ৬:৩৬ অপরাহ্ণ

উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে এবার আমরণ অনশন শুরু করেছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল পৌনে ৩ টার দিকে উপাচার্যের বাসভবেন সামনে শিক্ষার্থীরা অনশনে বসেন। বিকেল সাড়ে পাঁচটায় এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত উপাচার্যের বাসভবেন সামনে ২৪ জন শিক্ষার্থী অনশন চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের সাথে স্লোগানে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে কয়েকশ শিক্ষার্থী।

জাহিদুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থী দেশকে বলেন, যে প্রশাসন, উপাচার্য এবং শিক্ষকরা আমাদেরকে পুলিশ দিয়ে পেঠায় আমরা তাদের অবাঞ্চিত ঘোষণা করছি। যতক্ষণ পর্যন্ত ছাত্র কল্যাণ উপদেষ্টা, উপাচার্য ও প্রক্টোরিয়াল বডি পদত্যাগ না করছেন ততক্ষণ আমরা অনশনে থাকব। এতে যদি কোন শিক্ষার্থীর প্রাণনাশ হয় তাহলে এর জন্য দায়ী থাকবেন উপাচার্য, প্রক্টোরিয়াল বডি ও ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা।

আন্দোলনকারীদের মুখপাত্র মারুফ সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আজ বুধবার বেলা ১২ টা পর্যন্ত সময় বেধে দিয়েছিলাম। কিন্তু উপাচার্য পদত্যাগ করেননি। ক্ষমতার লোভ উপাচার্যকে নির্লজ্জ করে দিয়েছে। তাই পূর্বে ঘোষণা অনুযায়ী আমরণ অনশন শুরু করেছি। যতক্ষণ না উপাচার্য পদত্যাগ করবেন ততক্ষণ আমরা অনশনে থাকব। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে প্রেস ব্রিফিং করে উপাচার্যকে সরে দাঁড়াতে সময় বেঁধে দিয়ে অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষদের একাংশের মানববন্ধন
এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষদের একাংশ। আজ বেলা ১২ টার দিকে চলমান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ‘শ্লোগানের মাধ্যমে শিক্ষকদের হেয় করছেন’ উল্লেখ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তারা এ মানববন্ধন করেন। এসময় তাঁদের হাতে ‘স্টপ ভায়োলেন্স অ্যাগেইনস্ট ওমেন টিচার্স’ ‘শিক্ষকদের নিয়ে অশালীন মন্তব্যের প্রতিবাদ করছি’ ‘শাবিপ্রবির নারী শিক্ষকদের নিয়ে অশালীন মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই’ শীর্ষক প্লেকার্ড ছিল।

শিক্ষকরা অভিযোগ করে বলেন, ‘শিক্ষকরা জাতির বিবেক। আমরা ছাত্রদের গড়ে তুলি। তারা আমাদের সন্তানের মতো। আন্দোলন করতে গিয়ে তারা নারী শিক্ষকদের চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলছে, শ্লোগান দিচ্ছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের হেয় প্রতিপন্ন করে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিচ্ছে। যেকোন একজন শিক্ষকের জন্য সব শিক্ষকদের নিয়ে তারা এভাবে বলতে পারে না। তাই আমরা এমন ঘটনায় ক্ষুব্ধ।’ তবে শিক্ষকদের একাংশের এ মানববন্ধনে শিক্ষক সমিতির কোন নেতাকে দেখা যায়নি।

আন্দোলন ভিন্ন দিকে নিতে এ মানববন্ধনে
এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি, চলমান আন্দোলন ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করার জন্য গুটি কয়েকজন শিক্ষক মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছেন। আমাদের লজ্জা হচ্ছে যে শিক্ষার্থীরা পুলিশের হাতে মার খেয়েছে। এ ব্যাপারে ওই শিক্ষকরা কোন কথাই বলেনি। অথচ তারা মানববন্ধন করে আমাদের আন্দোলনের বিরোধিতা করলেন।
সিন্ডিকেট কমিটির নির্বাচন স্থগিত
উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আগামী ২ ফেব্রুয়ারির সিন্ডিকেট কমিটির নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। বুধবার সকালে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ। তিনি বলেন, ২ তারিখ সিন্ডিকেট নির্বাচন হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু এটা আপাতত বাতিল করা হয়েছে।

ঘটনার সুত্রপাত
গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে সিরাজুন্নেছা ছাত্রী হলের প্রভোস্টের পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে ছাত্রীরা আন্দোলন শুরু করেন। এর এক পর্যায় রোববার দাবি আদায়ে ছাত্রীরা উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখলে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর লাঠিচার্জ করে, রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে। শিক্ষার্থীরাও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে অর্ধশত শিক্ষার্থী আহত হন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা ও কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে পরদিন সোমবার দুপুর ১২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগেরও নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে এ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা টানা ছয় দিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া