ঢাকারবিবার , ২ জানুয়ারি ২০২২
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য
সিলেটের চা বিশ্ব মাতাচ্ছে

বাজারে আসছে ১৬ কোটি টাকা দামের চা

মোঃ মহিউদ্দিন আহমেদ, ব্যুরো প্রধান, সিলেট
জানুয়ারি ২, ২০২২ ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

আপনি জানেন কি বিশ্বের সবচেয়ে দামি চায়ের নাম কী? উৎস কোথায়? আর এই চায়ের দামই বা কত? শুনলে অবাক হবেন, বিস্ময়কর হলেও সত্যি, বিশ্বের সবচেয়ে দামি চায়ের নাম, ‘দ্য গোল্ডেন বেঙ্গল’। বাজারে আসছে চলতি বছরের মে মাসেই।

চা-পিপাসুদের সবচেয়ে রোমান্সকর অভিজ্ঞতা দিতে এই চা বাজারে নিয়ে আসছে লন্ডনের ১০৩ ব্রিক লেনে অবস্থিত ‘লন্ডন টি এক্সচেঞ্জ’। এই প্রসঙ্গে চমকপ্রদ সব তথ্য দিচ্ছেন লন্ডন টি এক্সচেঞ্জের কর্ণধার অলিউর রহমান। চলুন জেনে নেই তার মুখ থেকেই।

দেশ’কে তিনি বলেন, ‘‘বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছিলেন, বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত, ‘আমার সোনার বাংলা’, সেই সোনার বাংলার নাম অনুযায়ী এই চায়ের নামকরণ-দ্য গোল্ডেন বেঙ্গল।’’

আরও চমকপ্রদ তথ্য দিলেন অলিউর রহমান। জানালেন, বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই চায়ের উৎস আর কোথাও নয়। ‘আমার সোনার বাংলা’র সিলেট। আর এই চায়ের দাম পড়বে কেজিপ্রতি বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৬ কোটি টাকা।

প্রস্তুতকারক কোম্পানি-সূত্র বলছে, এই চা জাতে ব্ল্যাক টি হলেও স্বচ্ছ পেয়ালায় সোনালি রঙ ধারণ করবে। ‘দ্য গোল্ডেন বেঙ্গল’ তৈরির প্রক্রিয়াটিও বেশ সময়সাপেক্ষ। এর জন্য সময় লেগেছে প্রায় সাড়ে ৪ বছর। ৯০০ কেজি চা পাতা থেকে নানা-প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে  মাত্র ১ কেজি বাছাই করা হয়। যার প্রতি পাতায় থাকছে ২৪ ক্যারেট সোনার প্রলেপ।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নাকি জাপানি চায়ের ভক্ত ছিলেন। আর বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই চায়ের নামকরণের অনুপ্রেরণাও রবীন্দ্রনাথ। এই প্রসঙ্গে দেশ’কে অলিউর রহমান বলেন, ‘নোবেল-প্রাইজ উইনার্সদের এই চা-পাতা উপহার দিতে পারবো বলে মনে করছি।’

প্রসঙ্গত, বিশ্বের সবচেয়ে দামি চা ‘দ্য গোল্ডেন বেঙ্গলের’ ঠিকানা লন্ডনের ১০৩ ব্রিক লেনে অবস্থিত লন্ডন টি এক্সচেঞ্জ। যার প্রতিটি কোণায় ৩০০ বছরের পুরনো ইতিহাসের ছোঁয়া।

একসময় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মাধ্যমে সারা বিশ্ব থেকে আসা সেরা চায়ের পাতার নিলাম হতো সেখানে। ৯০-এর দশকে এই প্রতিষ্ঠান কিনে নেন চা গবেষক অলিউর রহমান।’

বিশ্বের ৪২টি দেশের প্রায় ৯০০ ধরনের প্রিমিয়াম চা পাতা পাওয়া যায় এখানে। এর মধ্যে ৩০০ ধরনের চা সাধারণ মানুষের জন্য।

লন্ডন টি এক্সচেঞ্জ বিশ্বের ৭৮টি রাজ পরিবারকে চা পাতা সরবরাহ করে। এমনকি, ইংল্যান্ডের রানির পছন্দের চা-ও এখান থেকেই পৌঁছে যায় বাকিংহাম প্যালেসে। ঐতিহাসিক সেই প্রতিষ্ঠানই বিশ্বের সবচেয়ে দামি চা নিয়ে হাজির হচ্ছে।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া