ঢাকামঙ্গলবার , ৭ ডিসেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

কামারচাকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আতাউর রহমানকে চেয়ারম্যান ঘোষণা

নুরুল ইসলাম শেফুল, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ৭, ২০২১ ৫:২৯ অপরাহ্ণ

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আতাউর রহমান বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।


মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা (কামারচাক ও টেংরা ইউনিয়ন) গোলাম রব্বানী খান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী বিধিমালা ২০১০ এর ২১ বিধি অনুসারে আতাউর রহমানকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান ঘোষণা করে গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছেন।
এর আগে গতকাল মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে এই ইউনিয়নে তার প্রতিদ্বন্দ্বি আরও ৩ প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় আতাউর রহমানের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পথ সহজ হয়।


প্রতিদ্বন্দ্বিরা জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সম্মান জানিয়ে তারা তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ নভেম্বর মনোনয়ন জমা দেয়ার শেষে দিনে কামারচাক ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দাবি করে দুইজন সহ মোট ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়ন জমা দেন। ২৯ নভেম্বর যাচাই-বাছাইয়ে আতাউর রহমানকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে রেখে বর্তমান চেয়ারম্যান নজমুল হক সেলিমের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. গোলাম রব্বানী খান। ৫ ডিসেম্বর আপীলের শুনানী শেষে মো. নজমুল হক সেলিমের আবেদন না-মঞ্জুর করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন। এর ফলে আওয়ামী লীগের আতাউর রহমান সহ মোট ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী এই ইউনিয়নে ছিলেন।


সোমবার (৬ ডিসেম্বর) মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিনে বাকী ৩ জন প্রার্থী জিয়াউর রহমান জিয়া, মান্না ছালামত, মো. ইনছান মিয়া প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলে ওই ইউনিয়নে আতাউর রহমান ছাড়া আর কোনো প্রার্থী ছিলনা। ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এই ইউনিয়নে নির্বাচিত হয়েছেন আতাউর রহমান।
নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যহারকারী প্রার্থী মান্না ছালামত জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আতাউর রহমানকে নৌকা দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সম্মান জানিয়ে আমরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছি।
অপর প্রার্থী মো. ইনছান মিয়া জানান, এলাকার উন্নয়নের প্রশ্নে আতাউর রহমানকে সাপোর্ট দিয়ে আমি প্রত্যাহার করে নিয়েছি।


উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. এমদাদুল হক বলেন, এই ইউনিয়নে ৫ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন। এক জনের আপীল আবেদন খারিজ হওয়ায় ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করার কথা ছিল। কিন্তু প্রত্যাহারের শেষ দিনে ৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় শুধু এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আতাউর রহমান ছিলেন। নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী তাকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া