ঢাকাশুক্রবার , ৩ ডিসেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

কর্ণফুলীতে শীমের বাম্পার ফলন, চাষীর মুখে হাসির ঝিলিক

চট্টগ্রাম জেলার কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যাতে শীম  চাষিদের চোখে-মুখে এখন তৃপ্তির হাসি। বিষন্নতার ছাপ অনেকটাই ম্লান হয়েছে তাদের গ্রীষ্মকালীন শিম চাষের মধ্য দিয়ে।
আজ  শুক্রবার ( ৩ডিসেম্বর ) উপজেলার  চরলক্ষ্যাতে  গিয়ে দেখা যায়, প্রচুর শিমের মাচা। রাস্তার ধারে ও জমির আইল ছাড়াও অনাবাদি জমিতে শীমের ছড়াছড়ি।ছড়ায় ছড়ায় ঝুলছে শিম।
বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে ওই এলাকার শীম চাষি হারুন ইসলাম  বলেন, আমাদের এখানে জমিতে এবার প্রচুর গ্রীষ্মকালীন শিমের চাষ হয়েছে। তাতে লাভবানও হয়েছি।সাধারণত শীতকালে শিম চাষ করে থাকি আমরা।  এবার নতুন বারি-৪ ও ইপসা-১ জাতের গ্রীষ্মকালীন শিমের ফলন ভালো হয়েছে। আগাম চাষে ফলন ও দাম- দুটোই আমরা পাচ্ছি। এতে  একদিকে যেমন অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হওয়ায়  সু্যোগ সৃষ্টির মধ্য দিয়ে স্বনির্ভর হওয়ার সম্ভাবনা বিদ্যমান অন্যদিকে আমাদের দেখাদেখি বেকার যুবকের মাঝে শিম চাষের আগ্রহ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বেকারত্বের হারও কমছে ধীরে ধীরে ।
গ্রামের আরেক  কৃষাণি রহিমা খাতুনের কাছে জানতে চাইলে রাস্তার ধারে লাগানো ক্ষেত থেকে শীম ছিঁড়তে ছিঁড়তে  বলেন, আগাম  শিম, তাই পোকা মাকড়ের উপদ্রব কম।  শীতকালীন শিম চাষের চেয়ে গ্রীষ্মকালীন শিম চাষে রোগবালাই অনেকাংশে কম। তাই ওষুধ ও সার খরচও কম। তা ছাড়া একটু আগাম হওয়াতে বাজারদাম ও পাওয়া যায় ভাল । চট্টগ্রামের বিভিন্ন বাজারে পাইকার ব্যবসায়ী দের সরবরাহ করে থাকি ।পাইকারিতে ৬০ থেকে ৭০ টাকায় কেনা এসব শিম খুচরা ৯০ থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি করেন  খুচরা বিক্রেতা।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া