ঢাকাশুক্রবার , ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

হবিগঞ্জের হাওরে অবাধে চলছে শামুক নিধন

মোঃ মহিউদ্দিন আহমেদ, ব্যুরো প্রধান, সিলেট
সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১ ২:৫৮ অপরাহ্ণ


হবিগঞ্জের লাখাই, বানিয়াচং, আজমিরিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাওরে অবাধে শামুক ধরে বিক্রি করা হচ্ছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে জীববৈচিত্র্য। চিংড়িঘের, হাঁস ও মৎস খামারে শামুকের কদর থাকায় জেলেরা এখন দলবেধে বিপুল পরিমান শামুক ধরেছে। স্থানীয় পাইকাররা তাদের কাছে সংগ্রহ করে যানবাহনের মাধ্যেমে দেশের বিভিন্ন খামারে বিক্রি করছে।



২০১২ সালের ১০ জুলাই প্রকাশিত সরকারি প্রজ্ঞাপনে শামুককে বন্য প্রানী হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। শামুক ধরা বন্ধের আইন থাকলেও তা প্রয়োগ হচ্ছেনা। বন্য প্রানী(সংরক্ষন ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২ এর ধারা ৬ ও ৩৪ এ বলা হয়েছে অনুমতি ছাড়া বন্য প্রানী শিকার,উঠানো,উপড়ানো ও ধ্বংস বা সংগ্রহ করা যাবে না। এছাড়া ক্রয় বিক্রিয় বা আমদানি রপ্তানি করা যাবে না।এ নিয়ম না মানলে তা অপরাধ হিসেবে গন্য হবে। এ অপরাধের জন্য এক বছরের কারাদন্ড ও সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করার বিধান রয়েছে।


সরজমিনে লাখাই উপজেলার বিভিন্ন হওর এলাকা ঘুরে দেখা গেছে। ছোট ছোট নৌকা দিয়ে জেলেরা জালের সাহায্যে শামুক ধরছে। দেখে মনে হয় মাছ ধরা চেষ্টা করছে তারা। ভোর রাত থেকে বিকাল তিনটা পর্যন্ত এভাবে শামুক ধরছে তারা। আজ শুক্রবার দুপুরে লাখাইয়ের চিকনিয়া গ্রামের সড়কের পাশে ভিড়ছে অন্তত ১২টি নৌকা। প্রতি নৌকা শামুকের বুঝা। শামুকের সাথে রয়েছে কিছু কাদামাটি। নৌকা থেকে শামুক তুলে কাদামাটি সরিয়ে বস্তুায় ভরছে তারা। পাইকাররা বসে আছে গাড়ি নিয়ে। কেউ নৌকা থেকে বস্তায় ভড়ছে।আবার কেউ যানবাহনে তুলছে শামুকের বস্তা। কোথাও দেখা গেছে সড়কের পাশে শামুক ভর্তি বস্তার স্তুপ।
ধলেশ্বরী নদী ঘেষা দশকামানিয়া বিল,বারগুনা বিল ও রইব্যার গুনা বিল থেকে প্রচুর পরিমান শামুক ধরা হচ্ছে।


দশকামানিয়া বিল থেকে শামুক ধরে আসা নান্টু দাস বলেন প্রতিবছর বর্ষা মৌশুমে হাওর লিজ হয়। লিজ গ্রহীতরা আবার ভাষা পানিতে মাছ ও শামুক ধরার উপ লিজ দেন এবং শুখনো মৌসুমে সেচ বা বাধ দিয়ে মাছ ধরার জন্য লিজ দিয়ে থাকেন। আমরা ভাসা পানি থেকে মাছ ও শামুক ধরার জন্য মাসিক হিসেবে নৌকা প্রতি ৪ হাজার টাকা নিয়ে উপ লিজ নেই। তিনি বলেন মাছের মৌসুমে মাছের অকাল। কিন্তু শামুকের কদর রয়েছে বেশি। আমরা অভাবি মানুষ, তাই শামুক ধরে যা আয় হয় তা দিয়েই সংসার চালাই।


একই ঘটে নৌকা ভিড়িয়েছে নিত্তলাল দাস, বনিনাথ দাস, মিটু দাস সহ অনেকই। তারা বলেন লাখাই উপজেলা ধলেশ্বরী নদীর বার গুনা বিল,আট বিল,বাওয়া বিল থেকে প্রতিদিন ৬০ থেকে ৭০টি নৌকায় শামুক ধরেছে। বর্ষার মৌমুসে মাছ কাম থাকায় জেলেরা এখন শামুক ধরার পেশায় নিয়োজিত রয়েছে। তারা বলেন মাছ না ধরলে জেলেদের সংসার চলে না। গত তিন বছর ধরে শামুকের কদর বেড়ে যাওয়ায় তারা এখন শামুক ধরছেন।


লাখাই উপজেলার সুজন গ্রামের বাসিন্ধা নিপেন্দ্রে দাশ ও অর্জন দাস বলেন সারা দিন এ সব বিল থেকে ২০০ থেকে ৩০০ বস্থা শামুক ধার হয়। এ গুলো স্থানীয় পাইকাররা ৭০টাকা দরে প্রতি বস্থা কিনে নিয়ে যায়। স্থানীয় পাইকার ফরিদ মিয়া বলেন তিনি গাড়িতে করে বিভিন্ন স্থানে অন্য ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে দেন। পরবর্তীতে তারা দেশে বিভিন্ন স্থানে বেশি দামে বিক্রি করে।


লাখাই উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মোঃ ইদ্রিস মুজমদার দেশকে বলেন আমি এ উপজেলায় নুতন যোগদান করেছি।বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেব।


বন্য প্রানী সংরক্ষন ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোঃ রেজাউল করিম চৌধুরী দেশকে বলেন শামুক প্রকৃতির উপকারী প্রানী। গুলো ধ্বংশ করা মারাত্মক অন্যায়। শামুক প্রজনন বৃদ্ধি করে বংশ বিস্তার করে। এ প্রানী পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সহায়তা করে। এ গুলো রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।


এ ব্যপারে কথা হয় হবিগঞ্জ সরকারি বৃন্দবন কলেজের প্রানি বিদ্যা বিভাগের সাবেক সহযোগী অধ্যাপক ও বর্তমানে হবিগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোঃ নজরুল ইসলাম ভূইয়ার সাথে। তিনি বলেন শামুক একটি বন্য প্রানী। এ গুলো ধরলে খাদ্য শৃংখল নষ্ট হয়ে যায়। শামুককে আমরা মনে করছি কোন কাজে লাগছে না। কিন্তু তারা নিজ থেকেই প্ররিবেশের ভূমিকা রাখে। শামুক পানির নিচে যে মাটি রয়েছে তা উর্বরতা করতে বিরাট ভূমিকা রাখে। প্রকৃতি থেকে শামুক ধরে পরিবেশ নষ্ট করা যাবেনা। কেউ যদি শামুক বিক্রি করতে চায় তাহলে শামুক চাষ করে উৎপাদন বাড়িয়ে বিপনন করতে পারে। তিনি বলেন যারা শামুক ধরছে তারা হয়তু জানেনা শামুক নিধনে পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে তাদের উদ্বূদ্ধ করতে হবে।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া

আপনার জন্য নির্বাচিত