ঢাকামঙ্গলবার , ৩১ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

পিৎজা বেচা আফগান মন্ত্রীর সাক্ষাৎকার

দেশ ডেস্ক
আগস্ট ৩১, ২০২১ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ


জার্মানিতে পিৎজা বেচা সেই আফগান মন্ত্রী সাক্ষাৎকারে যা বললেন


একসময় ছিলেন আসরাফ ঘানির মন্ত্রিসভায়। ২০১৮ সালে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন সাঈদ আহমদ সাদাত। কিন্তু প্রেসিডেন্টের সঙ্গে মন কষাকষির কারণে পদত্যাগ করেন তিনি। চলে যান জার্মানিতে। কিন্তু পেটের টানে এখন পিৎজা বিক্রি করে দিন চলছে সাবেক এই মন্ত্রীর।

সাদাতের পিৎজা বিক্রির ছবি আলজাজিরা সংবাদমাধ্যম প্রকাশ্যে এনেছে। টুইট করেছে, জার্মানির লিপজিগ শহরে সাইকেলে চেপে পিত্জা ডেলিভারি করার ছবি। গত বছরের ডিসেম্বর থেকে লিপজিগেই থাকেন সাদাত। সঞ্চয় ফুরোতেই খারাপ অবস্থা তার। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর ডিগ্রি রয়েছে তার পকেটে। কর্মসূত্রে সৌদি আরবসহ বিশ্বের ১৩টি দেশে ঘুরেছেন বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজকে জানিয়েছেন তিনি।


ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই নিউজ ভাইরাল হয়েছে। এ বিষয়ে তার প্রতিক্রিয়া জানতে বিশেষ সাক্ষাৎকার নেয় ফরাসি বার্তা সংস্থা। মন্ত্রী থেকে ডেলিভারি বয় হওয়ার বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে সাবেক আফগান মন্ত্রী সাঈদ আহমদ সাদাত বলেন, কাজ কাজই। কোনো কাজই ছোট নয়। এতে লজ্জার কিছু নেই। তিনি আরও বলেন, ‘আপনার একটা কাজ আছে। এর মানে মানুষের কাছে সেই কাজটার চাহিদা আছে। সুতরাং কাউকে না কাউকে সেটা করতেই হবে।’


আলজাজিরা তাদের প্রতিবেদনে জানায়, এক সময় পুরো একটা মন্ত্রণালয় চালালেও এখন জার্মানিতে কোম্পানি ইউনিফর্ম পরে পিৎজা ডেলিভারির কাজ করেন তিনি। দেখে বোঝার উপায় নেই তিনি কোনোদিন আফগান সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিলেন। তাতে অবশ্য কোনো আফসোস নেই সাদাতের। শান্তির খোঁজে রক্তাক্ত কাবুল থেকে বেরিয়ে এসে নিজের জীবনকে এভাবেই গুছিয়ে নিতে চান তিনি। মাতৃভূমি আফগানিস্তান থেকে সাড়ে ৬ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি দূরে এখন তার দিন কাটে।

জার্মানির লিপজিগে পালিয়ে আসেন গত ডিসেম্বরেই। ছিলেন আফগান সরকারের সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী। আর এখন তার পরিচয় ডেলিভারি বয়। সাইদ আহমদ সাদাতকে এখন প্রায়ই লিপজিগের রাস্তাঘাটে দেখা যায় সাইকেল নিয়ে ঘুরে বেড়াতে।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া

আপনার জন্য নির্বাচিত