ঢাকারবিবার , ১৫ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের চিহ্নিত করতে কমিশন গঠন করা হবে : আইনমন্ত্রী

dWPKOARWAa
আগস্ট ১৫, ২০২১ ৫:৪৯ অপরাহ্ণ


জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আজ রোববার আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।



প্রধান অতিথি আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক হলেন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বলেছেন- যারা এই হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে ছিল, তাদেরকে চিহ্নিত করে বাংলার মানুষের কাছে সাক্ষ্য প্রমাণসহ তাদের মুখোশ উন্মোচন করার জন্য একটি কমিশন হওয়া প্রয়োজন। আরও আগেই হয়তো কমিশন গঠন হয়ে যেত। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে এটা একটু বিলম্ব হচ্ছে। করোনার প্রকোপ কিছুটা কমে আসলে কমিশন গঠন করব।’


তিনি বলেন, এই কমিশনের মাধ্যমে আইনানুগভাবে যারা এই হত্যাকাণ্ডের কুশীলব ছিল, যারা নেপথ্যে থেকে লাভবান হওয়ার জন্য এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তাদেরকে চিহ্নিত করে জনগণের সামনে তাদের মুখোশ উন্মোচন করে দেওয়া হবে।

আইনমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষ যাতে সঠিক ইতিহাস জানতে পারে, কারা মিরজাফর, বেঈমান, নিমক হারাম সেটা জানতে পারে সেজন্য কমিশনের মাধ্যমে যারা পিছনে ছিল, যারা নেপথ্যে থেকে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তাদের পরিচয় জনগণের সামনে উন্মোচন করা হবে। শেখ হাসিনার সরকারের অঙ্গীকার বাংলাদেশে যতক্ষণ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর খুনিদেরকে এনে বিচারের রায় কার্যকর করা না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত তাদেরকে ধরার আনার প্রচেষ্টা চলবেই।

তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে বাংলাদেশে ফিরে এসে আওয়ামী লীগের হাল ধরার পর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সংগ্রাম প্রস্তুত করার পর ১৯৯৬ সালে প্রথমবার নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেন। বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবারের হত্যার বিচারের ব্যাপারে খুনি মুশতাক যে ইনডেমনিটি অর্ডিন্যান্স পাশ করেছিল সে অর্ডিন্যান্স বাতিল করে। খুনি মুশতাক, খুনি জিয়াউর রহমান এবং অন্যান্যরা এতই ভীত ছিল তারা নিজেরা যে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে সে ব্যপারে জনগণকে প্রমাণ করার জন্য একটা আইন পাশ করে। সে আইনটা বলে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে সেটার বিচার হতে পারবে না। আমার তো মনে হয় জঙ্গলের পশুরাও এমন আইন করে না।

আলোচনা সভায় যুবলীগ নেতা মনির হোসেনের সঞ্চলনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তারের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাসেম ভূইয়া, পৌর মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন সফিক আলেয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ জামশেদ শাহ।


এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, আখাউড়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জতি কনা দাস, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শাহানা বেগম।যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মুসলে উদ্দিন।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত