ঢাকাশনিবার , ১৪ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার
জাতীয় শোক দিবসে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি

খুলনা প্রেসক্লাবে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তিনদিনব্যাপী একক চিত্র প্রদর্শনী

সুনীল কুমার দাস, ব্যুরো প্রধান (খুলনা)
আগস্ট ১৪, ২০২১ ৬:২২ অপরাহ্ণ


খুলনা প্রেসক্লাবে ১৫আগস্ট স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তিনদিনব্যাপী ‘একক চিত্র প্রদর্শনী’ আজ শনিবার উদ্বোধন করা হয়েছে।



খুলনা প্রেসক্লোবের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু’র জীবন, কর্ম ও শোকাবহ পনেরই আগস্টের ওপর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত প্রাক্তন ছাত্রী চিত্রশিল্পী হিমা আক্তার হিরামনি’র একক চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। খুলনা প্রেসক্লাবের হুমায়ুন কবীর বালু মিলনায়তনে শনিবার সাকালে প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম জাহিদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা।


উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের সদস্যসহ শহিদদের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিন্টু, ক্লাবের সাবেক সভাপতি আহমদ আলী খান, এস এম নজরুল ইসলাম ও ফারুক আহমেদ, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাসান আহমেদ মোল্লা। সাবেক সাধারণ সম্পাদক মল্লিক সুধাংশু ও দৈনিক পূর্বাঞ্চল সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সনি।এ সময় নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী চিত্রশিল্পী হিমা আক্তার হিরামনি।প্রদর্শনীতে শিল্পীর আঁকা মোট ১৫টি ছবি স্থান পেয়েছে।


এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন খুলনা প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য মো: শাহ আলম, মোঃ আনিসউদ্দিন, শেখ মাহমুদ হাসান সোহেল ও সোহেল মাহমুদ, ক্লাব সদস্য  আতিয়ার রহমান, আব্দুল হালিম, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, হারুন-অর-রশীদ,ওয়াহেদ-উজ-জামান বুলু, আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, আসাদুজ্জামান খান রিয়াজ ,জয়নাল ফরাজী, শেখ মো: সেলিম, দীলিপ কুমার বর্মন, ইউজার সদস্য মোঃ নেয়ামুল হোসেন কচি, রীতা রানী দাস, মো. আজিজুল ইসলাম, বাবুল আকতার, এস এম বাহাউদ্দিন, মোঃ হেলাল মোল্লা, তুফান গাইনসহ অন্যান্য সাংবাদিক ও অতিথিবৃন্দ।উদ্বোধনের পর প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিসহ সকলে চিত্রকর্মগুলো ঘুরে দেখেন।এ প্রদর্শনী আগামী ১৬আগষ্ট পর্যন্ত চলবে।

খুলনায় জাতীয় শোক দিবসে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি : খুলনায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।আজ শনিবার খুলনা জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে এ কর্মসূচীর বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।


১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা এবং সূর্যাস্তের পূর্বে নামাতে হবে। ছেঁড়া বা বিবর্ণ পতাকা ব্যবহার করা যাবে না। সকাল আটটা থেকে দিনব্যাপী বাংলাদেশ বেতার খুলনা কেন্দ্রে অবস্থিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে। শ্রদ্ধাজ্ঞাপনস্থলে ১৫ থেকে ২০ জনের বেশি মানুষ একসাথে প্রবেশ করতে পারবে না। তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে সারিবদ্ধভাবে সবাইকে প্রবেশ করতে হবে।


পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে সকাল সাড়ে ১০টায় খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সীমিত সংখ্যক কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ও অনলাইনে দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। পরে একই স্থানে শিশু একাডেমির চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার এবং যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ঋণের চেক বিতরণ করা হবে। দুপুর সাড়ে ১২টায় গল্লামারী শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে ক্যান্সার, কিডনি, লিভার সিরোসিসসহ দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্তদের মাঝে এককালীন অনুদানের চেক ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার চেক বিতরণ করা হবে।

১৫ আগস্ট স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কালেক্টরেট জামে মসজিদ, পুলিশ লাইন মসজিদ ও টাউন জামে মসজিদে দোয়া মাহফিলসহ অন্যান্য মসজিদে বাদ যোহর বিশেষ মোনাজাত এবং সুবিধাজনক সময়ে মন্দির, গীর্জা, প্যাগোডা ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনা করা হবে। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রোথসেন্টারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে শোক দিবসের পোস্টার স্থাপন এবং এলইডি বোর্ডের মাধ্যমে জাতীয় শোক বিষয়ক প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। ১৫ আগস্ট খুলনা সিটি কর্পোরেশন সকল ওয়ার্ডে কুরআন খানি ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে। খুলনা মহানগরীতে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নকরণ ও মশক নিধন ওষুধ ছিটানোর ব্যবস্থা করা হবে। জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সকল সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে দিবসটি উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ, রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, চিত্র প্রদর্শনী, হামদ ও নাত প্রতিযোগিতা এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে।

১৫ আগস্ট উপলক্ষ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কোরআন তেলাওয়াত, হামদ-নাত, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে। দিবসটি উপলক্ষে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও সমাজসেবা অধিদপ্তর তাদের অধীন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন, সরকারি শিশু পরিবারসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কোরআন তেলাওয়াত, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, হামদ-নাত ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে।

জাতীয় শোক দিবসে স্থানীয় সংবাদপত্রগুলো বিশেষ সংখ্যা বা ক্রোড়পত্র প্রকাশ এবং বাংলাদেশ বেতারের খুলনা কেন্দ্র বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে। এছাড়া সকল সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং উপজেলা পর্যায়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

সর্বশেষ - আইন আদালত