ঢাকাবুধবার , ১১ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

আগের কোলাহলে ফিরেছে চেনা বাংলাদেশ

অনির্বান রায়
আগস্ট ১১, ২০২১ ৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ

চলাচলের বিধিনিষেধ শেষ হয়েছে। রাত পেরিয়ে সূর্যের আলো ফোটার সাথে সাথেই মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বিভিন্ন যানবাহন। স্তব্ধ নগরীর কোলজুড়ে কোলাহল শুরু হয়েছে লাখো কর্মজীবী মানুষের। ঝক ঝক ঝক আওয়াজ তুলে ছেড়ে যাচ্ছে ট্রেন, পেছনে ক্লান্ত অবয়বের এক কালো দিনের শহরকে ফেলে। বাজছে যাত্রীবোঝাই লঞ্চের সাইরেন। আর এভাবেই স্বাভাবিক হয়ে উঠেছে দেশের কোটি মানুষের জীবন-জীবিকা।

করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঊর্ধ্বমুখী কমাতে সরকার ঘোষিত টানা ৪০ দিনের বিধিনিষেধ শেষ হয়েছে। বাড়তি ভাড়া ছাড়াই আসন সংখ্যার সমান যাত্রী নিয়ে রাজপথে হাকডাকে সরগরম হয়ে উঠেছে সব গণপরিবহন। লকডাউনে আর্থিক ভোগান্তিতে পড়া পরিবহন সংশ্লিষ্ট শ্রমিকদের মুখে হাসি ফুটেছে বেশ লম্বা সময় পরে। পরিবহন খুললে মিলবে মজুরি এমন আশায় বুক বেধেঁছিলেন যে হাজার হাজার শ্রমিক, তারা আজ আনন্দে মেতেছেন।

তবে যে উদ্দেশ্যে পালন করা হলো লকডাউন, তার সুফল এখনো মিলেছে কিনা, সেই প্রশ্নই আসছে ঘুরেফিরে। কাগজে কলমে করোনা সংক্রমণ এখনও লাগামছাড়া। গ্রামাঞ্চলে ঘরে ঘরে জ্বর, স্বাস্থ্যবিধি মানায় অনীহাসহ নানা কারণে বাড়ছে সংক্রমণ।

লকডাউন খোলার আগের ২৪ ঘণ্টায় (মঙ্গলবার) সারাদেশে করোনায় ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ১১ হাজারেরও বেশি। তাই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শতভাগ মানুষকে মুখে মাস্ক পরাসহ প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চললে সংক্রমণ ও মৃত্যু আরও বাড়বে।

যে ৫ নির্দেশনায় চলবে গণপরিবহন

১. আসন সংখ্যার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। দাঁড়িয়ে নেয়া যাবে না কোনো যাত্রী। সড়কপথে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন (সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সংশ্লিষ্ট দফতর, সংস্থা, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিদিন মোট পরিবহন সংখ্যার অর্ধেক চালু করতে পারবে।

২. পূর্বের ভাড়ায় গণপরিবহন চলবে। ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া আর প্রযোজ্য হবে না। কোনোভাবেই আদায় করা যাবে না অতিরিক্ত ভাড়া।

৩. গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার, কন্ডাক্টর, হেলপার-ক্লিনার এবং টিকিট বিক্রয় কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে। তাদের জন্য রাখতে হবে প্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

৪. যাত্রার শুরু ও শেষে যানবাহন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নসহ জীবাণুনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। এছাড়া যাত্রীদের হাতব্যাগ, মালপত্র জীবাণুনাশক ছিটিয়ে জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা করতে হবে যানবাহনের মালিকদের।

৫. গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়াদি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

সর্বশেষ - আইন আদালত