ঢাকাশুক্রবার , ৬ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

মাটিরাঙ্গায় টিকা গ্রহণের আগ্রহ বাড়লেও সরবরাহ কম

dWPKOARWAa
আগস্ট ৬, ২০২১ ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ


মাটিরাঙ্গায় প্রথম দফার টিকা কার্যক্রমের সময় মানুষের আগ্রহের অভাব থাকলেও বর্তমান চিত্র ভিন্ন। দ্বিতীয় দফায় টিকা কার্যক্রমে টিকাগ্রহনকারীর আগ্রহ বেড়েছে অনেকাংশে মাটিরাঙ্গার প্রত্যন্তঅঞ্চল থেকে টিকা নিতে অনেকেই ভিড় জমাচ্ছে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে।



নিবন্ধন করার পর পরই টিকা দেয়ার তারিখ সর্ম্পকিত কোন এসএমএস না পেয়েই অনেক মানুষ কেন্দ্রে এসে টিকার জন্য ভিড় করছেন। আবার নিবন্ধন না করেও অনেকে আসছেন। তবুও তাদের কেহই টিকা না নিয়ে বাড়ি ফিরেন নি। ফ্রি রেজিষ্টেশন করে দিচ্ছে যুব রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা,বাড়তি চাপ থাকলেও ধর্য্যের সহিত টিকা কার্যক্রম নিয়মিত ছিল।


তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, মাটিরাঙ্গায় প্রথম করোনার টিকা দেয়া শুরু হয় ৭ ফেব্রুয়ারী প্রথম ধাপে ভারতের (সেরাম) প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন মাটিরাঙ্গার ৪ হাজার ৪ শত ৪৪ জন। কিন্তু ২য় ডোজ টিকা নিয়েছেন ৫ শত ৯৫ জন। টিকা সরবরাহ না থাকার কারণে ৩ হাজার ৮ শত ৪৯ জন দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে পারেন নি। মাটিরাঙ্গা উপজেলার প্রশাসনের প্রধান কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, ডাঃ মাটিরাঙ্গার প্রথম সারির রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ অনেকেই এসব টিকা নিয়েছেন। কিন্তু টিকা না থাকায় ২য় ডোজ টিকা নিতে পারেন নি তারা। এতে করে ডোজ সম্পুর্ণ করতে না পারার শঙ্কার মধ্যে রয়েছেন সবাই।
২য় ধাপে সিনোফার্মের টিকা দেয়া শুরু হয় ১৩ জুলাই থেকে। এতে ১ম ডোজের টিকা নিয়েছেন প্রায় ৩ হাজার আটশত ৮২ জন। উপজেলা ভিত্তিক বাজেটের তুলনায় বেশি টিকা পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ খায়রুল আলম।


এ দিকে আগামী ৭ থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত গণটিকা কার্যক্রম টিকা সল্পতার কারণে সীমিত করা হয়েছে। আপাতত শুধু ৭ আগস্ট শুধু একদিন প্রতিটি টিকাকেন্দ্রে অগ্রিম রেজিস্ট্রেশনের ভিত্তিতে বয়োবৃদ্ধ, অসুস্থ, নারী ও প্রতিবন্ধীদের অগ্রাধিকার দিয়ে ৩০০ জনকে টিকা দেওয়া হবে। আগামী ১৪ আগস্ট থেকে টিকা প্রাপ্তি সাপেক্ষে এই কর্মসূচি পুনরায় শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুব রেড ক্রিসেন্ট সোসাটির প্রধান কমল কৃষ্ণ দে বলেন, প্রতিদিন ৮ জন করে যুব রেড ক্রিসেন্টর সদস্যরা করোনার টিকা গ্রহণ কার্যক্রমে কাজ করে যাচ্ছে। গত কয়েকদিন টিকা সরবরাহ কম থাকার কারণে টিকা কার্যক্রম আপাতত স্থগিত ছিল। টিকার সরবরাহ শুরু হলে টিকা দেয়ার কার্যক্রম পুনরায় শুরু করা হবে।


মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ খায়রুল আলম জানান, বরাদ্ধকৃত টিকার তুলনায় মাটিরাঙ্গা উপজেলায় টিকা গ্রহনের আগ্রহ বেশ বেড়েছে। প্রতিদিন ১শত পঞ্চাশ জন টিকা দেয়ার কথা থাকলেও আমার গত দুদিন পূর্বে প্রায় ৬শত জন কে টিকা দিয়েছি ফলে টিকা দ্রুত শেষ হয়ে যায়। খাগড়াছড়ি সিভিল সার্জন কর্তৃক করোনার টিকা পাওয়া মাত্রই টিকা কার্যক্রম পুনরায় শুরু করা হবে।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত