ঢাকামঙ্গলবার , ৩ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার
জন্ম নেওয়া শিশুর দত্তক নিল এক পরিবার

ঋণের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণের অভিযোগ

dWPKOARWAa
আগস্ট ৩, ২০২১ ৬:২২ অপরাহ্ণ


বাঁশখালীতে ঋণ নিয়ে ফাঁদে ফেলে এক গৃহবধূকে (৩২) ধর্ষণের ফলে জন্ম নেয়া মেয়ে শিশুটিকে দত্তক নিয়েছেন এক পরিবার। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি খোকন বড়ুয়ার (৫৫) বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঋণের টাকা নিয়ে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করায় সন্তানের জন্ম হয়েছে জানান ভুক্তভোগী গৃহবধু। ঘটনাটি বাঁশখালী পৌরসভার উত্তর জলদিতে।


গত রবিবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ধর্ষণের শিকার নারী এক মেয়ের জন্ম দেন। পরে সেটি ফেইসবুকে জানাজানি হয়। গৃহবধু শিশুটিকে দত্তক দিয়ে দিতে চান। আজ মঙ্গলবার সকালের দিকে ইউএনওর হস্তক্ষেপে ওই শিশুটিকে দত্তক নেয় এক পরিবার। ধর্ষণের শিকার গৃহবধুর স্বামী মালেশিয়া প্রবাসী ১১ বছর ধরে। তিনি চৌদ্দ বছরের ছেলে ও তের বছর বয়সের মেয়ে সন্তানের জননী।


ধর্ষণের শিকার গৃহবধু দেশকে জানান, সমস্যায় পড়ে অভিযুক্ত খোকন বড়ুয়ার কাছ থেকে ৩৬ হাজার টাকা ঋণ নিই। তিনি একদিন আমাকে বলে টাকাগুলো দিয়ে দাও না হলে আমার সাথে অবৈধ সম্পর্ক করতে হবে। একদিন পাড়ায় থাকা তার দোকানের ওখানে গেলে জোর করে আমাকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে আমি গর্ভবতী হয়ে পড়ি। এখন আমার সংসার ভেঙে খানখান হয়ে গেছে। এর দায় কে নেবে?


তিনি আরো বলেন, খোকন বড়ুয়া পাড়ার বিভিন্ন নারীর সাথেও কুকর্ম করেছে। তার বিচার হওয়া দরকার। এ বিষয়ে আমি আমার কয়েকজন অভিভাবকের সাথে কথা বলছি।


অভিযুক্ত খোকন বড়ুয়ার বিষয়ে তার পাড়ার লোকজন বলেন, সে লম্পট প্রকৃতির লোক। পাড়ার কতজন নারী-মেয়েদের সাথে লম্পটগিরি করেছে তার হিসেব নেই। এখন ধরা পড়ল আর কি!


এ বিষয়ে অভিযুক্ত খোকন বড়ুয়া বলেন, আমি ওই নারীর কাছ থেকে ৪০ হাজারের বেশি টাকা পাই। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বলছে এরা। আমি জড়িত নই। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ওই নারী অসহায় মনে হয়েছে। তাই থানা থেকে শুরু জন্ম নেওয়া মেয়ে শিশুটিকে দত্তক দেওয়া সব বিষয় সামাল দিয়েছি। ওই নারী থানায় অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নিতে বলা হবে।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত