ঢাকাশনিবার , ৩১ জুলাই ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

ফ্রি ফায়ার খেলাকে কেন্দ্র করে বাবা নিহত ছেলে আহত

dWPKOARWAa
জুলাই ৩১, ২০২১ ৬:২৭ অপরাহ্ণ


চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌরসভার ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামে ফ্রি-ফায়ার গেমস্ খেলাকে কেন্দ্র করে সুজন নামের যুবকের হাতে শহিদুল নামের (৪৫) একজন নিহত হয়েছে। এবং তার ছেলে ইলফাজ হোসেন (১৬) ছুরিকাঘাতে গুরুতর জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি।


আজ শনিবার (৩১ জুলাই বেলা সারে ১২ ঘটিকার সময় ঈশ্বরচন্দ্রপুররে বড় মসজিদের সামনে এঘটনা ঘটে।


দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমান কাজল জানান, তুচ্ছ ঘটনার জেরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে। তিনি আরো জানায়, ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে দর্শনা বিডি মাধ্যমে বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির ছাত্র ইলফাজ ও তার বন্ধু সুজন ও জাকিরের সাথে একে অপরের মধ্যে পিতাকে নিয়ে ব্যাঙ্গাত্তক ও পরে মোবাইল ফোনে ফ্রি-ফায়ার গেমস্ খেলাকে কেন্দ্র করে এক পর্যায়ে জাকিরের সাথে সুজনের কথা কাটাকাটি হয়।

জাকিরের পক্ষ নিয়ে ইলফাজও তাদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এতে সুজন ক্ষিপ্ত হয়ে জাকির ও ইলফাজকে মারধর করে। পরে ইলফাজের বাবা শহিদুল ইসলাম প্রতিবাদ করলে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে সুজন। এসময় ছেলে ইলফাজকেও ছুরিকাঘাত করে সে। এতে বাবা শহিদুল ও ছেলে ইলফাজ মারাত্মক জখম হলে তাদের দুজনকেই উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহানা আহমেদ বাবা শহিদুল ইসলামকে মৃত ঘোষনা করেন। একইসাথে ছেলে ইলফাজকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়।


চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহানা আহমেদ জানান, নিহত শহিদুলের বুকে, পিঠে ও পেটে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এসব স্থানে গভীর ক্ষত হওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত