ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২৯ জুলাই ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গণমাধ্যম
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ জুড়ে
  15. দেশ পরিবার

নিখোঁজ মনুর খোঁজে সারাদিন উপকূলে স্বজনেরা

dWPKOARWAa
জুলাই ২৯, ২০২১ ৯:৩৯ অপরাহ্ণ


ভেসে যাওয়া নৌকা তীরে আনতে গিয়ে কতুবদিয়া চ্যানেলে ডুবে নিখোঁজ হয় ছনুয়ার নেজাম উদ্দিন মনু (১৯)।


বুধবার (২৮ জুলাই) দুপুর ঘটনাটি ঘটে। এদিন দুপুর থেকে সন্ধ্যা এবং আজ বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সারাদিন ছনুয়া সমুদ্র উপকূলের মদিনা মসজিদ এলাকায় জেলেরা খোঁজ করে নেজামের। কিন্তু দেহ পাওয়া যায়নি। নেজামের স্বজনদের কান্নায় ভারী হয়ে উঠে ছনুয়া উপকূল।


আজ বৃহস্পতিবার সকালে কোস্টগার্ড ও ফায়ারসার্ভিসের ডুবুরির দল আসার কথা ছিল। কিন্তু তাদের কাউকে ঘটনাস্থলে দেখা যায়নি। গত বছর সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ট্রলার ডুবে মারা যায় নেজামে চাচাত ভাই আব্দু শুক্কুর (২০)। নিখোঁজ নেজামের পরিবারে চারবোন রয়েছে। সে একমাত্র ভাই। ছনুয়া সমুদ্র উপকূলে তার শোকে কান্না করছিল তার বড় বোন হুমাইরা। কান্না করে বলছিল, “এই দুই চোখ ফিরিয়ে দাও আল্লাহ।”


ছনুয়া সমুদ্র উপকূলে দেখা গেছে, ভীড় করেছে স্থানীয় লোকজন ও নেজামের আত্মীয় স্বজন। কোস্টগার্ড ও ফায়ারসার্ভিসের ডুবুরির দল না আসায় সাগরে খোঁজে নামে স্থানীয় জেলেরা। অন্তত ১০ টি মাছ ধরার নৌকা উদ্ধার কাজে নামে। দিনভর তারা খোঁজ চালায়। কিন্তু নেজামের দেখা মেলেনি।


আজ সকালে বাঁশখালী ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার আব্দুর রহমান বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি। তারা জানিয়েছে, সাগরের উদ্ধার কাজ চালায় এরকম ডুবুরি আমাদের নেই। এরকম দক্ষ ডুবুরি একমাত্র কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর থাকে। এ বিষয়ে কোস্টগার্ডের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।


ছনুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ বলেন, স্থানীয় জেলেরা সাগরে অনেক খোঁজ করেছে। নেজামের দেহ পাওয়া যায়নি। ধারণা করছি আগামীকাল লাশ ভেসে উঠতে পারে। এই স্থানে বেশ কয়েকজন ডুবে মার গেছে। মারা গেলে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে আর্থিকভাবে সহায়তার চেষ্টা করব।

প্রতিবেদক

সর্বশেষ - আইন আদালত