1. ayanabirbd@gmail.com : deshadmin :
  2. hr.dailydeshh@gmail.com : Daily Desh : Daily Desh
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১২:৩২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ

প্রতিদিন গড়ে ৫ জন আক্রান্ত

রূপগঞ্জে কুকুর আতঙ্ক !

রাসেল আহমেদ, রূপগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০

কুকুরের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে রূপগঞ্জবাসী। হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞার কারণে কুকুর নিধন বন্ধ থাকায় ও নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা না নেওয়ার কারণে ক্রমেই কুকুরের সংখ্যা বেড়ে চলছে। উপজেলায় প্রায় চার হাজার বেওয়ারিশ কুকুর রয়েছে। জলাতঙ্কে আক্রান্ত কুকুরের কামড়ে ও আঁচড়ে গড়ে প্রতিদিন ৫ জন আক্রান্ত হচ্ছে।


গত এক বছরে ২ হাজার মানুষ জলাতঙ্কে আক্রান্ত হয়ে টিকা নিয়েছে। তবে আশ্চর্যের বিষয়, উপজেলার গ্রামেগঞ্জে এখনো জলাতঙ্কের টিকা না নিয়ে কবিরাজের দাওয়াই নিচ্ছে। বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রবে পথচারী থেকে শুরু করে বাজারে-বন্দরে লোকজন রীতিমতো আতঙ্ক নিয়ে চলাফেরা করে। গত তিনমাসে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কুকুরের কামড়ে প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যাক্তি আক্রান্ত হয়েছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, রূপগঞ্জে হঠাৎ করেই বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা বেড়ে গেছে। প্রতিদিনই উপজেলার কোথাও না কোথাও জলাতঙ্ক কুকুড়ের কামড়ে ও আঁচড়ে আক্রান্ত হওয়ার খবর রয়েছে। গড়ে ৫ জন কুকুড়ের কামড়ে আক্রান্ত হচ্ছে। প্রায় চার হাজার বেওয়ারিশ পথ কুকুড় রাস্তা-ঘাট, পথ-ঘাট ও অলিগলি দখলে রেখেছে। গত এক বছরে ২ হাজার মানুষ জলাতঙ্কে আক্রান্ত হয়ে টিকা নিয়েছে। জলাতঙ্কে আক্রান্ত গত ৫ বছরে ৭ জনের মারা যাওয়ার তথ্য রয়েছে। রূপগঞ্জের কাঞ্চন ও তারাবো নামে দু’টি পৌরসভা রয়েছে। এছাড়া রয়েছে কায়েতপাড়া, ভোলাবো, ভুলতা, দাউদপুর, রূপগঞ্জ সদর, গোলাকান্দাইল ও মুড়াপাড়া নামে ৭ টি ইউনিয়ন পরিষদ। গোটা উপজেলায় হাট-বাজার রয়েছে দেড়’শ উপড়ে। আর এসব এলাকায় প্রায় ৪০০০ হাজার বেওয়ারিশ কুকুর অবাধ বিচরণ করছে।

অনুসন্ধানে আরো জানা গেছে, ২০০৯ সালের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত কুকুড় নিধন অব্যাহত ছিলো। ওই বছরই ‘অভয়ারণ্য’ নামে এক এনজিও কুকুর মারাকে প্রাণী হত্যা ও পরিবেশবিরোধী বলে প্রচারণা শুরু করে। এরপর কুকুর নিধনের বিপক্ষে উচ্চ আদালতে রিট করার পর কুকুর নিধনের উপড় উচ্চ আদালত নিষেধাজ্ঞা জারি করে। উচ্চ আদালতের রায়ের প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ২০১২ সালের জানুয়ারি মাসে কুকুর নিধন বন্ধে নির্দেশ দেয়। চলতি বছরের চলতি মাসেও কুকুর নিধন রোধে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাইকোর্টে রিট করেছেন।
উপজেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বেসরকারী হাসপাতালগুলোর দেওয়া তথ্যমতে, সপ্তাহে অন্তত ২/৩ জন কুকুড়ে কামড়ে আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা নিতে আসে। আবার অনেক জটিল রোগীকে মহাখালী সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে পাঠানো হয়।
সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাস্তাঘাটে বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বেড়ে গেছে। কুকুরের যন্ত্রণায় ঘর থেকে বের হওয়া দায়। প্রত্যেক গ্রামে ও হাট-বাজারে কুকুরের অবাধ বিচরণ রয়েছে। গত কয়েক মাসে কুকুরের কামড়ে প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আক্রান্ত হয়েছে। বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বেড়ে গেলেও সরকারীভাবে কুকুর নিধণের কোন কাযক্রম চোখে পড়েনি। কথা হয় নগরপাড়া এলাকার মনির হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ভাই এত কুকুর। রাস্তায় বের হলেই ঘেউ-ঘেউ করে তেড়ে আসে। আর রাত হলেতো কথাই নেই। কুকুর নিধণ কাযক্রম সম্পর্কে বলেন, গত কয়েক মাসে কুকুর মেরেছে এমন ঘটনা ঘটেনি। তারাবো বাজারে কথা হয় মা মেডিকেল ফার্মেসীর ম্যানেজার শোভন মিয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, ৪/৫ টা করে কুকুর দোকানের সামনে এসে বসে থাকে। অনেক সময় রোগীরা ভয়ে আসতে চায় না। কুকুর নিয়ে সবাই আতঙ্ক আর ভোগান্তিতে আছে। অথচ কুকুর নিধণে কোন কাযক্রম নেই।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ ফয়সাল হোসেন বলেন, সাধারণ কুকুরের কামড়ে সংক্রমণ, টিটেনাস রোগের আশঙ্কা থাকে। শিশুদের নাকে-মুখে কুকুর কামড়ালে ৭০ থেকে ৮০ ভাগ ক্ষেত্রেই তারা মারা যায়। র‌্যাবিস ভাইরাসে আক্রান্ত কুকুর, বিড়াল, শিয়াল, বেজি, বানর ও চিকার মাধ্যমেও জলাতঙ্ক রোগ ছড়ায়। আমাদের দেশে মূলত কুকুরের কামড়ে বা আচঁড়ে ( রক্ত বের না হলেও ) জলাতঙ্ক রোগ বেশি হয়। বাগবাড়ি এলাকার চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী রাজন মিয়া। গত এক সপ্তাহ আগে সে স্কুলে যাওয়ার পথে কুকুরে কামড়ায়। রাজন মিয়ার পিতা আবুল হোসেন বলেন, কুকুরের সংখ্যা এতোই বেড়ে গেছে। রাস্তা দিয়ে চলা দায়।
আল-রাফি হাসপাতালের চেয়ারম্যান, কলামিষ্ট ও রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর আব্দুল আলীম বলেন, কুকুর আতঙ্কের প্রাণী। নিধন না হওয়ার কারণে কুকুরের উপদ্রব বেড়েই চলছে। আল-রাফি হাসপাতালে এসব রোগীদের গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হয়। উপজেলা প্রাণী সম্পদ ডাঃ জাহাঙ্গীর রতন বলেন, আসলে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞার কারণে কুকুর নিধণ সম্ভব হচ্ছে। কুকুরের উপদ্রব যে হারে বাড়ছে তাতে সমাজের ও পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি হবে। তবে জেলা থেকে ভ্যাকসিনের মাধ্যমে কুকুর নিধন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

@desh.click এর অনলাইন সাইটে প্রকাশিত কোন কন্টেন্ট, খবর, ভিডিও কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা দন্ডনীয় অপরাধ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

@desh.click এর অনলাইন সাইটে প্রকাশিত কোন কন্টেন্ট, খবর, ভিডিও কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা দন্ডনীয় অপরাধ।

নামাজের সময়সূচীঃ

    Dhaka, Bangladesh
    মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:৪২
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৫৮
    যোহরদুপুর ১১:৪৩
    আছরবিকাল ৩:০১
    মাগরিবসন্ধ্যা ৫:২৮
    এশা রাত ৬:৪৪

@ স্বত্ত দৈনিক দেশ, ২০১৯-২০২০

সাইট ডিজাইনঃ টিম দেশ