ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

সোনারগাঁ উপজেলা উপ-নির্বাচনে নেই আমেজ

মাজহারুল ইসলাম, সোনারগাঁ প্রতিনিধি
সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১ ৩:২৬ অপরাহ্ণ


নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষিত সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের শূন্যপদে নির্বাচনের অংশ হিসেবে চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন আগামী ৭ অক্টোবর। এই উপ-নির্বাচনে ৭ জন আওয়ামীলীগ প্রার্থীর নাম ছাড়া অন্য কোন দলীয় প্রার্থী বা সতন্ত্র প্রার্থীর নাম এখন পর্যন্ত শোনা যায়নি।


বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান হওয়াটা এখন নির্ভর করছে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ঐক্যের উপর। তবে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে নির্বাচনে অংশ নিতে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ৭ জনের মধ্যে ১ জন প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন না পেলেও দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকবেন নির্বাচনী মাঠে।

সোনারগাঁ উপজেলা জুড়ে নেই কোন নির্বাচনী আমেজ। প্রচারণায় মাঠে নেই প্রার্থীরা। অলি-গলিতে ব্যানার ও পোষ্টার সাটানো চোখে পড়ছে না। সব প্রার্থীরই ধারনা যেন-সোনার হরিণ নৌকা প্রতীক পেলেই চেয়ারম্যান। জনতার রায়, জনসেবা, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি, ভোট কেন্দ্রে ভোটার টানার কোন পরিকল্পনা কোন প্রার্থীর মধ্যেই দেখা যাচ্ছে না। সাধারণ ভোটারদের দাবি, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকলেও বিএনপি, জামায়াত, জাতীয়পার্টি কোন সতন্ত্র প্রার্থীও না থাকলে এই নির্বাচন হতে পারে হাস্যকর ভোটার শূন্য নির্বাচন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জাতীয় পার্টি নেতা বলেন, ভাই আগে জান বাঁচাই তারপর নির্বাচন। এক প্রশ্নের জবাবে ঐ নেতা বলেন, তারা এখন পাগল হয়ে গেছে- কিছু একটা হওয়ার জন্য। জনগণের চিন্তা তাদের নাই। তারা শুধু নিজের ক্ষমতা, দাপট কিভাবে আরো বাড়ানো যায় সেই চেষ্টা করছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এটা যেহেতু সরকার পরিবর্তনের নির্বাচন নয়, তাই প্রশাসনের উচিত হবে অন্ততপক্ষে এই নির্বাচনে সর্বমূল্যে মানুষের ভোটাধিকার রক্ষা করা। ভোট ডাকাতি বা ভোট চুরির প্রতিবাদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলেও বিএনপি-জামায়াত, জাতীর পার্টির নেতা-কর্মীদের উচিৎ হবে ভোট কেন্দ্রে যাওয়া ও নাগরিক দ্বায়িত্ব পালন করা। নাগরিক দ্বায়িত্ব পালন ও ভোট প্রধানের মাধ্যমে নৌকার পরাজয় নিশ্চত করাটাও হতে পারে একটি শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের অংশ।

সিসি এসএম আসাদুজ্জামানের স্বাক্ষরিত এক তফসিলে জানানো হয়েছে, ১৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ, ১৪ সেপ্টেম্বর দালিককৃত মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের তারিখ নির্ধারণ, ১৯ সেপ্টেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ও ৭ অক্টোবর ভোট গ্রহণ।

সোনারগাঁ উপজেলা থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন, উপজেলা পরিষদের সদ্য প্রয়াত চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের ছোট ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনির হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মাহফুজুর রহমান কালাম, সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু, সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার, জেলা পরিষদ সদস্য ও সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম এবং উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বাবুল ওমর বাবু।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া