ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৮ জুলাই ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আবোল-তাবোল
  5. উদ্যোক্তা
  6. উপসম্পাদকীয়
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কলাম
  9. ক্যারিয়ার
  10. খেলার মাঠ
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ পরিবার
  15. দেশ ভাবনা

রিকশার চাকা ঘুরলেই চলে সংসারের চাকা 

রুবেল আহমেদ, আখাউড়া প্রতিনিধি
জুলাই ৮, ২০২১ ২:০১ অপরাহ্ণ


যে বয়সে আরাম করার কথা সে বয়সে সংসারের বোঝা কাঁধে নিয়ে রিকশার হেন্ডেল ধরে বসে থাকে যাত্রীর আশায় আব্দুল খালেক (৬২)।


 

এই বৃদ্ধ বয়সে সংসারের বিশাল বোঝা এখনও তার কাঁধে।  তার একার আয়েই চলে ৫ সদস্যের পরিবার। নিত্যদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিরামহীন তিন চাকার রিকশার প্যাডেল ঘুরিয়ে যা উপার্জন করে তা দিয়েই চলছে তার পরিবার । তার চোখে মুখে নেই কোনো দু:খের ছাপ। হাসি মুখেই এ দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।

 

আখাউড়া পৌর শহরের কলেজ পাড়ায় এক চা’য়ের দোকানে কথা হয় তার সঙ্গে। সে জানায়, তার পরিবারে ৫ জন সদস্য রয়েছেন। গত ১০ বছর ধরে আখাউড়ার বিভিন্ন এলাকায় রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন তিনি।

 

আব্দুল খালেক কিশোরগঞ্জের সদর উপজেলার বাসিন্দা হলেও আখাউড়া বসবাস করেন দীর্ঘ ৩৮ বছর যাবত। এখানে থেকেই তিনি বিয়ে করে সংসার জীবন শুরু করেন। এক সময় তিনি দৈনিক শ্রমে পরিশ্রমের কাজ করতেন। এই আয় দিয়ে চলতো তার সংসার। বয়স হয়েছে তাই বেশি পরিশ্রমের কাজ করতে না পেরে রিকশা চালিয়েই জীবিকানির্বাহ করেন তিনি।সংসার জীবনে ২ মেয়ে ১ছেলে আর স্ত্রী নিয়ে তার সংসার। ছেলেটার বয়স ১১ বছর মাদ্রাসায় পড়ে আর মেয়ে দুটির বয়স যাথাক্রমে ১৭ ও ১৫। রিকশা চালিয়ে কোনরকমে সংসার চালালেও এখন তার চিন্তা মেয়ে দুটি নিয়ে। তাদের বিয়ে দিতে হবে। খরচের টাকা কোথায় পাবে এই চিন্তা তাকে ভাবিয়ে তুলে।

 

বৃদ্ধ আব্দুল খালেক জানায় কঠোর লকডাউনের আগে প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত ৩-৪শ টাকা পাওয়া যেত। এখন সারাদিনে ২শত টাকা পাওয়া কঠিন। এই সময়ে পরিবার নিয়ে খুব কষ্টে দিনপার করছি। আবার অনেক সময় বৃদ্ধ দেখে রিকশায় যাত্রী উঠতে চায় না।মাঝে মাঝে আক্ষেপ হয় জীবনে অভাব অনটন কখনো পিছু ছাড়েনি। সংসারে অভাব অনটন লেগে থাকায় অনাহারে অর্ধাহারে চলতে হয় তবু কোন অভিযোগ নেই জীবনের প্রতি।

সর্বশেষ - জাতীয়