ঢাকারবিবার , ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

প্রজ্ঞাপনের পরেও চবি হল ও পরিবহন ফি নিচ্ছে

তৌহিদুর রহমান, স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম
সেপ্টেম্বর ৫, ২০২১ ৩:০২ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে হল ও পরিবহন ফি  ক্লাস-হল বন্ধ থাকার পরও।



হল ও পরিবহন ফি নিয়ে সৃষ্ট সমালোচনা দূর করতে গত ৩১ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হল করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ থাকা ১৭ মাসের হল ও পরিবহন ফি মওকুপ করে প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেন।


৩১ আগস্টের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘২০২০ সালের ১৮ মার্চ থেকে ২০২১ সালে বিশ্ববিদ্যালয় হল ও ক্লাস বন্ধকালীন সময় পর্যন্ত পরিবহন, বাসন-কোশন ও আবাসিক হলের সিট ভাড়া খাতে নির্ধারিত ফি-সমূহ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যথাযথ পর্ষদের অনুমোদন সাপেক্ষে মওকুফ করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। যেসকল শিক্ষার্থীর নিকট থেকে ইতিমধ্যে আদায় করা হয়েছে তাদের পরিশোধকৃত অর্থ সমন্বয় করে ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’


প্রজ্ঞাপন জারী হলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৫ সেপ্টেম্বর (রোববার) সকাল থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে হল ও পরিবহন ফি আদায়ের অভিযোগ করেছেন একাধিক শিক্ষার্থী।


আন্তর্জাতিক সর্ম্পক বিভাগের শিক্ষার্থী ফায়াজ রহমান দেশ’কে জানান,পরীক্ষার ফি জমা দিতে গেলে হল ও পরিবহন ফি জমা দেওয়ার জন্য ব্যাংকে গেলে ব্যাংক কর্মকর্তারা বলছেন- ফি মওকুফের বিষয়ে কোনো নির্দেশনা তাদেরকে দেওয়া হয়নি। তাছাড়া পূরণ করা ফরমে কোনো সংশোধনও করা হয়নি। তাই তাদের পক্ষে ফি কম নেওয়া সম্ভব নয়।


বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, আমরা হল-পরিবহন ফি মওকুফের ঘোষণা দিয়েছি। তবে ঘোষণার পর এখন পর্যন্ত অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের মিটিং হয়নি। মিটিংয়ে বিষয়টি উত্থাপন করা হবে। এর আগ পর্যন্ত আপাতত শিক্ষার্থীদের ব্যাংকে ফি জমা দিতে হবে। তবে অবশ্যই এ টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া