ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

পটিয়ার শান্তিরহাট- বুধপুরা রোড়ের উপর নির্মাণ করা হচ্ছে দোকান শেড

আবেদ আমিরী, পটিয়া প্রতিনিধি
সেপ্টেম্বর ২, ২০২১ ৬:১৫ অপরাহ্ণ


পটিয়ার শান্তিরহাট- বুধপুরা রোড়ের উপর নির্মাণ করা হচ্ছে দোকান শেড। এ শেডের ফলে পটিয়ার শান্তিরহাট- বুধপুরা রোডের শান্তিরহাট মুখে যানজট এবং যাস্তা আরো সংকুচিত হয়ে পড়বে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় লোকজন। এর ফলে সড়কে গাড়ি বা সাধারণ মানুষের চলাচলে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হতে পারে। এর আগে কয়েক মার্কেটের মালিক ফুটপাত দখল সড়কের উপর মার্কেটের সিঁড়ি ও বিভিন্ন দোকঘর নির্মাণ করার অভিযোগ উঠে।


এ কারণে রাস্তাটি একেবারে চলাচলের অনুপযোগি হয়ে যান আর মানুষের চলাচলে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হয়। সম্প্রতি সড়কটি আরসিসি ঢালাই দ্বারা উন্নয়ন করে সড়ক বিভাগ। এরপর একটি একটি মার্কেট তাদের সামনে রাস্তা ঘেষে শেড নির্মাণ শুরু করেছেন। একটি ফিডার রোড় থেকে স্থাপনা নির্মাণের ক্ষেত্রে ১৭ ফুট দুরত্ব বজায় রাখার বিধান থাকলেও জমজম সুপার মার্কেটের মালিক দুরত্ব বজায় রাখার স্থলে নতুন করে সড়কের উপর লোহার পাত দিয়ে শেড নির্মাণ করছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গুরুত্বপূর্ণ এ সড়ক দিয়ে পটিয়ার বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন ছাড়াও আনোয়ারা উপজেলা লোকজন কালীগঞ্জ হয়ে যাতায়াতের জন্য সড়কটি ব্যবহার করে। গুরুত্ব বিবেচনায় পটিয়া আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর নির্দেশে রাস্তার উপর থেকে কাচা বাজার অপসারণ, সড়কের সম্প্রসারণ ও ড্রেন নির্মাণ করা হয়। চট্টগ্রাম- কক্সবাজার মহাসড়কের উপর থেকে কাচা বাজার সরিয়ে নিজস্ব জমিতে স্থায়ীভাবে বাজারটি প্রতিস্থাপন করা হয়। লোকজন যাতে বাজারে সহজে যাতায়াত ও এ রাস্তা ব্যবহারকারী লোকজন সুবিধা পায় সেজন্য নানাভাবে সড়কটি উন্নয়ন করা হয়। কিন্তু গত দুই বছর আগে রাস্তার ফুটপাত দখল ও ড্রেন ভেঙে তাতে মার্কেট ও সিড়ি তৈরি করায় সড়কটি বর্ষায় পানি চলাচল ও শুকনে মওসুমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পয়নিস্কাশনের অন্যতম পথ হিসেবে তৈরি হয়। এ কারণে সারা বছরই সড়কটি চলাচলের অনুপযোগি হয়ে উঠে। সম্প্রতি কয়েক কোটি টাকা ব্যায়ে সড়ক বিভাগ সড়কটি উন্নয়ন করে। কিন্তু দখল বেদখলেল ফলেরাস্তার সুফল সাধারণ মানুষ নাও পেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে, দোহাজারী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ জানান, গুরুত্ব বিবেচনায় সড়কটির উন্নয়ন ও এর পাশে ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছিল। বাজারের জমিতে যেন বাজার থাকে সেজন্য সব ধরণের সুবিধা গড়ে দেয়া হয়। সাধারণ মানুষ সচেতন না হওয়ায় তারা এর সুফল পাচ্ছে না। সরকার যতই উন্নয়ন করুক সাধারণ মানুষ সচেতন না হলে এর কোন সুফল মিলবে না। সবার আগে সাধারণ মানুষকে সচেতন হতে হবে। জম জম মার্কেট শেড নির্মাণের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া