ঢাকারবিবার , ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

চট্টগ্রামে চলছে দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি


চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি। গ্রামে-গঞ্জে, শহরের অলিতে-গলিতে, বিভিন্ন পাড়াতে অস্থায়ী দুর্গামন্ডপের প্যান্ডেল তৈরির কাজ শুরু করেছে পুজো কমিটি। পাশাপাশি স্থায়ী মন্ডপ গুলোতে চলছে নানা পরিকল্পনা। অন্যদিকে বিভিন্ন প্রতিমালয়ে শুরু হয়েছে প্রতিমা নির্মাণ পর্ব। অনেক পূজা কমিটি আবার নিজ নিজ মন্ডপে তৈরী করছে প্রতিমা।



চট্টগ্রাম নগরীর সদরঘাট কালী মন্দির প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিমা গড়ার কাজে ব্যস্ত সুজন পাল ও তাঁর সহযোগিরা। তৈরী করা হয়েছে প্রতিমা কাঠামো। খড় ও মাটির সংমিশ্রণে চলছে পূর্ণ অবয়ব সৃষ্টির কাজ। দূর্গা প্রতিমার পাশাপাশি লক্ষী, সরস্বতী, কার্তিক ও গণেশ নির্মাণের কাজও চলছে সমানতালে।


সুজন পাল জানান, পারিবারিক ভাবে বাবা দুলাল কৃষ্ণ পাল মারা যাওয়ার পর আমরা দুইভাই মিলে একসাথে কাজ করছি।


চট্টগ্রাম মহানগরে মোট প্রতিমালয় রয়েছে ১০ টি। এর মধ্যে সদরঘাট এলাকায় ৫টি, চকবাজার বৃন্দাবন আখেড়াঁ, এনায়েত বাজার গোয়ালপাড়া, হাজারী গলি, লাভ লেইন ও কাট্টলী এলাকায় রয়েছে একটি করে প্রতিমালয়। প্রতিমা শিল্পীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতি বছর দুগা পূজায় প্রতিটি প্রতিমালয় গড়ে ২৫ থেকে ৩৫টি প্রতিমা গড়েন শিল্পীরা।


উল্লেখ্য ১১ অক্টোবর পঞ্চমী তিথিতে শারদীয় দুর্গাপূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে সাজ সাজ রব। ভোর বেলায় বীরেন্দ্র কিশোর ভদ্রের চন্ডী পাঠ শোনার অপেক্ষায় ধরণী। শরতের কাশ ফুলের শুভ্রতা, ঘাসের ডগায় কুয়াশার শিখরে পড়ে থাকা শিউলি ফুল দেবীর চরণে নিবেদনের জন্য মুখিয়ে আছে ভক্তকূল।


মৃৎশিল্পী সমিতি’-র সভাপতি রতন পালের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিমার সাজসজ্জায় পরিবর্তন হয়েছে। কাপড় চোপড় ও অলংকারে খরচ বেড়েছে বহুগুণ। দিন যতই গড়াচ্ছে বিভিন্ন আনুষাঙ্গিক জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় পূর্বের মতো মাটির কাপড় চোপড়ের দিকে ঝুঁকছেন অনেক পূজা কমিটি। প্রতিমা শিল্পীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিমা খরচ আগের থেকে অনেক বেড়ে গেছে। বর্তমানে ৩০ হাজার থেকে শুরু করে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত প্রতিমা নির্মাণে খরচ হয়।


প্রতিমা বানানোর কাজ শুরু হয় মূলত মনসা পূজোর পর থেকে। বিভিন্ন জায়গা থেকে বায়না নেয়া শুরু হয়। চট্টগ্রামের উত্তর-দক্ষিণ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিভিন্ন জায়গায় মন্দিরে মন্দিরে প্রতিমা বানাতে হয় কারিগরদের।


আর মাত্র এক মাস ছয় দিন পর সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। পুজার চার পাঁচদিন আগে পুরোপুরি প্রতিমা গড়নের কাজ শেষ হয়। এরপর ৫মী তিথিতে শুরু হয় দেবী বন্দনার ধর্মীয় বৈদিক আচার-অনুষ্ঠান।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া