ঢাকারবিবার , ২২ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

ঘেরের আইলে সবজি চাষে কৃষকের মুখে হাসি


তালা উপজেলায় ঘেরের আইলে ‘বিষমুক্ত সবজি চাষ’ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ধান ও মাছের পাশাপাশি ঘেরে উৎপাদিত সবজি বিক্রি করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন এখানকার কৃষকরা। মৌসুমী ধান ও মাছ চাষ করে একসময় যাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে কষ্টে দিন কাটত, লাভজনক সমন্বিত সবজি চাষে এখন তাদের মুখে হাসি ফুটেছে।


তালা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে ১৬৫ হেক্টর ঘেরের বেড়িতে সবজি চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার ৬৩০ মেট্রিক টন সবজি লক্ষ্যমাত্রা উৎপাদিত ধরা হয়েছে। উপজেলার মাগুরা, ধানদিয়া, নগরঘাটা মিঠাবাড়ী পাচপাড়া, সরুলিয়া, তৈলকুপি, মাদরা, খলিষখালি, দুধলাই, পাকশিয়া, মঙ্গলানন্দকাটী, টিকারামপুর, বাগমারা, বালিয়াদাহ, খেশরা, হরিহরনগর, গাছা, মুড়াগাছা অঞ্চলে ঘেরের আইলে জমিতে এখন সবজি আর মাছের বিপ্লব।

সরেজমিন বিলে দেখা যায়, মৎস্য ঘেরের ভেড়িতে শোভা পাচ্ছে লাউ, ভেন্ডি, করলা, মিষ্টি কুমড়া, উচ্ছে, ঝিঙে, বরবটি, পটোল, শিম, কুমড়া, পুইশাক, পেঁপে, শসা, খিরাইসহ নানাবিধ সবজি। আইলে বিশেষ পদ্ধতিতে বাঁশ ও নেট দিয়ে ঝুলন্ত মাচা তৈরি করা হয়। তারপর বিষমুক্ত সবজির আবাদ করে বাড়ন্ত গাছ মাচার ওপর ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এতে জায়গা কম লাগে ও অল্প পরিচর্যায় ভালো ফসল পাওয়া যায়।

মাগুরা ইউনিয়নের বালিয়াদহ গ্রামের বাবু গোলদার জানান, তার ১০ বিঘা ঘেরের আইলে মাচা পদ্ধতিতে সবজির চাষ করেছে। উৎপাদিত সবজি পাইকারী ব্যাপারীদের কাছে বিক্রি করেন তিনি। এতে সংসার ভালভাবে চলেও কিছু টাকা উদ্বৃত্ত থাকে। সেই টাকা দিয়ে ঘেরে মাছের খাবার কেনান তিনি।

একই এলাকার সোহরাব হোসেন,হান্নান শেখ সহ সবজি চাষীদের সাথে কথা হলে তারা জানান,বর্তমানে দেশে ও বিদেশে সবজির ব্যাপক চাহিদা হওয়ায় গতকয়েক বছরে মৎস্য ঘেরের আইলে সবজি চাষে ভাগ্যের পরিবর্তন এসেছে তাদের জীবনে।

বিশেষ করে মাছের ঘেরে মাচা পদ্ধতিতে সবুজ সবজির চাষ কৃষিতে নবদিগন্তের দ্বার উন্মোচন করেছেন দাবি করে কৃষকরা, মাচা পদ্ধতিতে সবজি চাষে বদলে গেছে তাদের মতো বহু কৃষকের ভাগ্য।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা শুভ্রাংশু শেখর দাশ জানান, কৃষকদের বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনের জন্য উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। এজন্য উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তারা নিয়মিত উঠান বৈঠক ও সবজির ক্ষেতে গিয়ে কৃষকদের পরামর্শ দিচ্ছেন। এছাড়া উন্নত জাতের বীজ সরবরাহ ও পোকা দমনে আলোর ফাঁদসহ বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

তালা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ হাজিরা বেগম জানান, অধিকাংশ ঘেরের পাড়ে সবজি চাষ হচ্ছে। ঘের পাড়ে উৎপাদিত লাউ, উচ্ছে, শসা ও বরবটি অনেক আগে থেকে বাজারগুলোতে আসতে শুরু করেছে। কৃষকেরাও ভালো দামও পাচ্ছেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিফ-উল-হাসান জানান, মৎস্য ঘেরের আইলে সবজি চাষে আমূল পরিবর্তন এসেছে তালা উপজেলায়।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া