ঢাকাশুক্রবার , ২ জুলাই ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আবোল-তাবোল
  5. উদ্যোক্তা
  6. উপসম্পাদকীয়
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কলাম
  9. ক্যারিয়ার
  10. খেলার মাঠ
  11. গ্যাজেট
  12. জাতীয়
  13. টাকা-আনা-পাই
  14. দেশ পরিবার
  15. দেশ ভাবনা
কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে সমন্বিত উদ্যোগ

খুলনায় পুলিশ-প্রশাসনের পাশাপাশি বিজিবি-সেনা মোতায়েন

মফস্বল সম্পাদক
জুলাই ২, ২০২১ ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ


খুলনায় করোনা সংক্রমনের উর্দ্ধগতি নিয়ন্ত্রনে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে সমন্বিত উদ্যোগ নিয়েছে প্রশাসন। আজ বৃহষ্পতিবার (১ জুলাই) প্রতিকুল আবহাওয়ার মধ্যেই মহানগরী ও জেলার সব উপজেলায় সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে। এলাকার সকল সড়ক, মহাসড়ক ও অলিগলিতে পুলিশী টহল, ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে।


এছাড়া বিভিন্ন মোড়ে, বাজার ও শপিং মল এলাকা এবং ঝুঁকিপূর্ন এলাকায় বিজিবি ও সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এতে প্রথমদিনে অনেকাংশে কঠোর লকডাউনে সাধারণ মানুষের চলাচল সীমিত ছিল।একই সাথে দোকানপাট, অফিস, শপিং মলসমূহ বন্ধ দেখা গেছে। পথে পথে কঠোর তল্লাশী ও চেকিং এবং বেরিকেট থাকায় মানুষ ও যানবাহনের অযাচিত যাতায়াত তেমন ছিল না। তবে আবহাওয়া প্রতিকুল ও বৃষ্টির মধ্যেও অলিগলিতে দোকানপাট ও অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা দেখা গেছে।

 

 

জেলা প্রশাসক মো: মনিরুজ্জামান তালুকদার জানান, ইতিমধ্যেই বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, সেনাবাহিনী, আনসার বাহিনী, কোষ্টগার্ড ও নৌবাহিনী এবং স্বাস্থ্য বিভাগসহ সব দপ্তরের সমন্বয়ে সভা করে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। খুলনা মহানগরীতে ও জেলায় প্রশাসনের ২৬জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করছেন। এরমধ্যে মহানগরীতে ৮জন ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে আটটি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়েছে। এছাড়া কেএমপি ও জেলা পুলিশের সকল ইউনিট, র‌্যাব, আনসার বাহিনীও দায়িত্ব পালন করছে। একইসাথে দুই প্লাটুন বিজিবি প্রশাসনকে সহায়তা করছে। খুলনা মহানগরী ও জেলার সকল উপজেলায়ও সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। খুলনায় এক ব্যাটেলিয়ান সেনা সদস্যদের জন্য মহানগরীতে একটি ও উপকুলবর্তী পাইগাছা ও কয়রা উপজেলার জন্য একটি মোট দুটি ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। সেখান থেকে সেনাবাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করবেন এবং প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগীতা করবেন। সাতদিনের কঠোর লকডাউনে জনসাধারন মেনে চলবেন এবং যারা বাইরে জরুরী প্রয়োজনে বের হবেন তারা সবাই মাক্স পরে বের হয়ে সর্তকভাবে চলাচল করবেন বলে তিনি আশা করেন। অহেতুক কেউ বের হলে বা ঘোরাঘুরি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

 

খুলনার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো: ইকবাল হোসেন জানান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটদের নেতৃত্বে লকডাউন বাস্তবায়নে আজ বৃহষ্পতিবার সকাল থেকেই নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো: আরিফিুল ইসলাম, ইসমাইল হোসেন, রাকিবুল ইসলামসহ ৮জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নগরীর ডাকবাংলা, ফেরীঘাট, শিববাড়ি মোড়, নিউমার্কেট জোড়াগেট, ময়লাপোতা বঙ্গবন্ধু চত্বর, সাতরাস্তার মোড়, রূপসা মোড়, লবনচরা, সোনাডাঙ্গা, নিরালা, গল্লামারীসহ বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করেছেন। এসব এলাকায় রিক্সা, মটরসাইকেল, ইাজবাইক, টেম্পু ও পথচারীদের তল্লাশী করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। সাধারন মানুষ যেন বিনা কারনে ও অযাচিতভাবে বাজার, রাস্তাঘাটে ঘোরাফেরা না করে সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন করা হচ্ছে। এবং যারা বিনা প্রয়োজনে ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মাক্স না পরে বাইরে আসছে তাদেরকে জরিমানা করা হয়। আজ  নগরীতে বেশ কয়েকজনকে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া জেলার ৯টি উপজেলায়ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনাররা (ভূমি) একই ভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করেন। আগামী এক সপ্তাহ এভাবে প্রশাসনের সবাই পুলিশ, আনসার, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সহযোগীতায় এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে কাজ করে যাবে।

সর্বশেষ - জাতীয়