ঢাকারবিবার , ২২ আগস্ট ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

খুলনার দিঘলিয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

সুনীল কুমার দাস, ব্যুরো প্রধান (খুলনা)
আগস্ট ২২, ২০২১ ৫:৫৭ অপরাহ্ণ


খুলনার দিঘলিয়ায় স্ত্রী মিনারানীকে হত্যার দায়ে স্বামী পরিমল বাইনকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আজ রোববার খুলনার দায়রা জজ আদালতের বিচারক মশিউর রহমান চৌধুরী এ রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামি পরিমল বাইন পলাতক রয়েছে।



মামলার বিবরনে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৬এপ্রিল খুলনার দিঘলিয়া থানার এএসআই মোঃ আব্দুল মজিদ উপজেলার গাজীরহাট এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় স্থানীয় লোকজনের কাছে জানতে পারেন ওই এলাকার পদ্মবিলা ও বামনডাঙ্গা বিলের মাঝে আত্রাই নদীর সংযোগস্থলে মস্তকবিহীন লাশ পড়ে রয়েছে। পরে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।লাশের নাম-পরিচয় না পাওয়ায় এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে তিনি থানায় মামলা দায়ের করেন।প্রাথমিকভাবে এ মামলার তদন্ত করেন থানার এসআই আসাদুজ্জামান। পরে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়।


সিআইডি’র পুলিশ পরিদর্শক মীর আতাহার আলী মামলার তদন্তকালে নিহতের স্বামী পরিমল বাইন ও টিপু সুলতান শেখকে গ্রেপ্তার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পরিমল বাইন তার স্ত্রী হত্যার বিষয়টি স্বীকার করে।পরে ১৬৪ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দি প্রদান করে। পরিমল বাইনের একাধিক বিয়ের ঘটনা জেনে যাওয়ায় স্ত্রী মিনারানী পোদ্দার স্বামীর সাথে খারাপ ব্যবহার করত। পারিবারিক ঝগড়ার সূত্র ধরে তাকে হত্যার জন্য পরিকল্পনা করে স্বামী পরিমল। হত্যার জন্য ১০ হাজার টাকায় ভাড়া করা হয় একই এলাকার খুনী টিপু সুলতানকে। সে অনুযায়ী ভিকটিমকে তার স্বামী পরিমল ১৩এপ্রিল রাতে টিপু সুলতানের বাড়ি নিয়ে যায়। সেখানেই টিপু সুলতান দা দিয়ে ভিকটিমের দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করে। পরে তারা মস্তকবিচ্ছিন্ন লাশ পাশের নদীতে ফেলে দেয়।


২০১৭ সালের ২০জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তাদের দু’জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। বিচার চলাকালীন সময়ে আসামি টিপু সুলতানের মৃত্যু হলে তাকে অব্যহতি দেওয়া হয়।পরে নিহতের স্বামী পরিমল বাইন জামিন নিয়ে পালিয়ে যায়।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া