ঢাকাশনিবার , ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. অন্য আকাশ
  2. আইন আদালত
  3. আবোল-তাবোল
  4. উদ্যোক্তা
  5. উপসম্পাদকীয়
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. কলাম
  8. ক্যারিয়ার
  9. খেলার মাঠ
  10. গ্যাজেট
  11. জাতীয়
  12. টাকা-আনা-পাই
  13. দেশ পরিবার
  14. দেশ ভাবনা
  15. দেশ সাহিত্য

খুবিতে নারী শিক্ষককে যৌন হয়রানীর প্রতিবাদে মানববন্ধন

সুনীল কুমার দাস, ব্যুরো প্রধান (খুলনা)
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১ ৬:২২ অপরাহ্ণ


খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি)শিক্ষক কতৃর্ক সহকর্মী নারী শিক্ষককে যৌন হয়রানীর প্রতিবাদে ও দোষীর শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।



আজ শনিবার দুপুরে নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগ খুলনার নারী ও যুব সেলের উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে জনউদ্যোগ নারী সেলের আহবায়ক এ্যাডঃ শামীমা সুলতানা শীলুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তৃতা করেন সদস্য সচিব সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন,মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার সমন্বয়কারী এ্যাডঃ মোমিনুল ইসলাম, খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির নেতা এসএম সোহরাব হোসেন, সুজনের এ্যাড. মামুনর রশীদ,বৃহত্তর আমরা খুলবাসীর সাধারন সম্পাদক এসএম মাহাবুবুর রহমান খোকন, নান্দিক একাডেমীর পরিচালক জেসমিন জামান, বিডাব্লিউসিসিআই চিশতী মোস্তরী বানু, সুন্দরবন লায়ন্স ক্লাব সঞ্চিতা দে, লেখিকা সংঘের মুক্তা জামান, যুব সেলের অনুপ কুমার মন্ডল, থেডের নির্বাহী পরিচালক পরেশ কুমার সাহা, সিপিবির মিজানুর রহমান বাবু, বাসদের সমন্বয়ক জনার্দন নান্টু, টিইউসির রঙ্গলাল মৃধা, রূপসা মহিলা কলেজের শিক্ষক মোঃ মনিরুজ্জামান, যুব ইউনিয়নের শাহ মোঃ অহিদুজ্জামান, ছাত্রনেতা সনজিত মন্ডল, খবি’র শিক্ষার্থী আতিদ তূর্য, আশিক বিশ্বাস, নোমান প্রমুখ।


সমাবেশে বক্তারা বলেন, নারীদের উপর হয়রানির বিষয়গুলো অনেক প্রতিষ্ঠান সিরিয়াসলি না নেওয়ার কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি সংক্রান্ত কমিটি শক্তিশালী করা হচ্ছে না। কর্মস্থলে যৌন হয়রানীর প্রতিকার পাবার জন্য ২০০৯ সালে বাংলাদেশের হাইকোর্ট একটি নির্দেশনা দিয়েছিল। সেখানে বলা আছে, কোন প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠলে সেটি তদন্ত এবং প্রতিকার পাবার ব্যবস্থা থাকতে হবে। কেউ যদি মনে করে যে তিনি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ন্যায় বিচার পাননি তাহলে সে সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যে কোন পক্ষ আদালতের দ্বারস্থ হতে হবে। এর বাইরে গুরুতর অভিযোগের ক্ষেত্রে ভিকটিম পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে পারবেন। এত সব আইন থাকলেও তার প্রয়োগের অভাবে অভিযোগকারী প্রতিকার পাচ্ছে না।যৌন হয়রানির শিকার হলে নারীদের অবশ্যই অভিযোগ করার জন্য এগিয়ে আসতে হবে। অভিযোগ দায়ের না করলে অপরাধীরা অনায়াসে পার পেয়ে যাবে এবং পরবর্তীতে আবারো অন্যজনের সাথে একই অপরাধ করবে।অনেকে মনে করে যে অভিযোগ উত্থাপন করলে শিক্ষাজীবন ক্ষতিগ্রস্ত হবে কিংবা পরবর্তীতে চাকরি পেতে সমস্যা হবে। তাছাড়া অনেকের পরিবারও চায়না যে বিষয়গুলো প্রকাশ হোক। ফলে এই সুযোগে অপরাধীরা দিনদিন পার পেয়ে যাচ্ছে। মানববন্ধনে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন শিক্ষক কতৃর্ক নারী শিক্ষকের যৌন হয়রানির যথাযথ তদন্তপূর্বক দোষীকে কটোর শাস্তির আওতায় আনার দাবী জানানো হয়।

সর্বশেষ - সোশ্যাল মিডিয়া